দেশরাজনীতি

‘দেশের বাকি রাজ্য পাকিস্তানে না’, করোনা টিকা নিয়ে বিজেপিকে তোপ শিবসেনার

মহানগরবার্তা ওয়েবডেস্ক: বিহারের বিধানসভা নির্বাচনের আগে শাসকদল এবং বিরোধীদের মধ্যে দ্বন্দ্বে ক্রমশ উত্তপ্ত হয়ে চলেছে রাজনৈতিক পরিস্থিতি। সম্প্রতি করোনা ভাইরাসের টিকা নিয়ে যে ‘রাজনীতি’ শুরু হয়েছে তার বিরুদ্ধে সরব হয়েছে একাধিক বিরোধী দল। এবার এ বিষয়ে শিবসেনার তোপের মুখে পড়ল বিজেপি। শাসকদল নির্বাচনের আবহে করোনার টিকা নিয়ে ‘নোংরা রাজনীতি’ করে চলেছে বলে অভিযোগ করেছে তাঁরা।

করোনা আবহে টিকা নিয়ে বিজেপির প্রতিশ্রুতি প্রসঙ্গে শনিবার শিবসেনার মুখপত্র ‘সামনা’-তে বলা হয়েছে, “বিজেপি করোনার সুযোগ নিয়ে রাজনীতি করছে। বিহারের টিকা পাওয়া উচিত, কিন্তু দেশের প্রত্যেক নাগরিকেরই টিকা পাওয়ার সমান অধিকার রয়েছে।” শাসকদলের প্রতি শিবসেনার কটাক্ষ, “দেশের অন্যান্য রাজ্য পাকিস্তানের অন্তর্ভুক্ত নয়।”

এখানেই শেষ নয়, শিবসেনার মুখপত্র ‘সামনা’য় এদিন এও বলা হয়েছে, প্রধানমন্ত্রী আগেই জানিয়েছিলেন, করোনার টিকা তৈরি হলে তা বর্ণ, ধর্ম বা রাজ্য বিচার করে বিতরণ করা হবে না। তাই ভোটের মুখে এখন বিহারের জনতাকে বিভ্রান্ত করার জন্যেই এহেন প্রতিশ্রুতি দেওয়া হচ্ছে বলে জানানো হয়েছে শিবসেনার তরফে।

এ প্রসঙ্গে চুপ করে থাকেন নি দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালও। শিবসেনার আক্রমণের রেশ টেনেই আম আদমি পার্টির এই নেতা সমালোচনা করেছেন শাসকদলের। এ বিষয়ে তাঁর বক্তব্য, ‘‘গোটা দেশের মানুষেরই করোনার টিকা পাওয়া উচিত। সকলেরই সেই অধিকার রয়েছে।’’

বস্তুত, গত বৃহস্পতিবার প্রকাশিত বিহার বিধানসভা নির্বাচনের ইস্তাহারে বলা হয়েছিল, করোনা ভাইরাসের টিকা উৎপন্ন করা হলে সমস্ত বিহারবাসীকে বিনামূল্যে তা দেওয়া হবে। এহেন ঘোষণার পর থেকেই ভোট আদায়ের জন্য শাসকদলের এই পদক্ষেপের চরম বিরোধিতা শুরু হয়েছে রাজনৈতিক মহলে। সমালোচনায় সরব হয়েছেন প্রায় সবকটি বিরোধী দলই। কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী থেকে শুরু করে ন্যাশনাল কনফারেন্স নেতা ওমর আবদুল্লা সকলেই তোপ দেগেছিলেন বিজেপির বিরুদ্ধে। সেই সূত্রেই এবার সরব হয়েছে শিবসেনাও। অবশ্য শত বিরোধিতা সত্ত্বেও বিজেপির তরফ থেকে এ বিষয়ে কোনো প্রতিক্রিয়া চোখে পড়ে নি। বিজেপি শাসিত নানা রাজ্যেই শুরু হয়েছে বিনামূল্যে করোনা টিকা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দান।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close