আন্তর্জাতিক

যৌন ক্ষমতা ধ্বংস করা হবে ধর্ষকদের, ধর্ষণের কঠিন শাস্তির পথে পাকিস্তান

মহানগরবার্তা ওয়েবডেস্ক: ভারত তথা দক্ষিণ এশিয়ার দেশ গুলিতে নারীদের উপর শারিরীক নির্যাতন বা ধর্ষণের ঘটনা একটি গুরতর সামাজিক সমস্যা। দীর্ঘদিন ধরেই ধর্ষণ বিরোধী প্রচার চালানো হলেও এই সমস্যার বিশেষ কোনো সমাধান চোখে পড়েনি এখনও। ভারত না পারলেও এবার ধর্ষণ রুখতে নয়া পদক্ষেপ গ্রহণ করল প্রতিবেশী পাকিস্তান।

সূত্রের খবর অনুযায়ী, এবার ধর্ষণ রুখতে ধর্ষকদের কেমিক্যাল কাসট্রেশন অর্থাৎ রাসায়নিক ভাবে যৌন ক্ষমতা ধ্বংস করার আইন আনতে চলেছে পাকিস্তান সরকার। মঙ্গলবারই পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান এই আইন অনুমোদন করেছেন বলে জানা গেছে পাক সংবাদমাধ্যম সূত্রে। জিও টিভির রিপোর্ট অনুযায়ী, পাক মন্ত্রীসভার একটি ফেডেরাল ক্যাবিনেটের মিটিং-এ দেশের আইনমন্ত্রক ধর্ষণ বিরোধী এই আইনের খসড়া পেশ করেন। তখনই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। যদিও সরকারের তরফে এ ব্যাপারে এখনও পর্যন্ত কোনো আনুষ্ঠানিক ঘোষণা করা হয় নি।

জানা গেছে, ওই খসড়ায় ধর্ষকদের শাস্তি ছাড়াও এ ধরনের ঘটনায় পুলিশিং, ফাস্ট ট্র্যাকিং এবং সাক্ষী সুরক্ষায় মহিলাদের ভূমিকা বৃদ্ধির বিষয়েও জোর দেওয়া হয়েছে। শুধু তাই নয়, ঘটনার গুরুত্ব বিবেচনা করে দ্রুত তদন্তের ব্যবস্থা করার উপরও জোর দিয়েছেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। তিনি বলেন, ” আমাদের দেশের নাগরিকদের জন্য একটা সুরক্ষিত পরিবেশ তৈরি করাই আমাদের মূল লক্ষ্য।”

এদিন তিনি আরো বলেন, ধর্ষণের ঘটনার পর ধর্ষিতা যাতে নির্দ্বিধায় অভিযোগ দায়ের করতে পারেন সে ব্যাপারে নজর দেওয়া হচ্ছে। সরকারের তরফ থেকে ধর্ষিতার পরিচয় সম্পূর্ণ রূপে গোপন রাখার আশ্বাসও এদিন দিয়েছেন ইমরান খান। সূত্রের খবর অনুযায়ী কোনো কোনো ফেডেরাল মন্ত্রী প্রকাশ্যে ধর্ষকদের ফাঁসির পরামর্শও দিয়েছেন।

উল্লেখ্য, ধর্ষণের মতো জঘন্য অপরাধের যোগ্য শাস্তির দাবিতে দীর্ঘদিন ধরেই সোচ্চার ভারতের মানুষও। কিন্তু চরম দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির কোনো ঘোষণা এখনও পর্যন্ত করা হয় নি এদেশে। প্রতিবেশী পাকিস্তানের দৃষ্টান্তের পর কি তবে নড়ে চড়ে বসবে ভারত? জানা যাবে সময় হলেই।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close