দেশ

পালঘর সাধু হত্যার প্রতিবাদ, মহারাষ্ট্রে বিজেপি নেতাকে আটক করল মুম্বাই পুলিশ

মহানগর বার্তা ওয়েবডেস্কঃ মহারাষ্ট্রের পালঘরে সাধু হত্যা কান্ড নিয়ে এখনও জারি তরজা। প্রায় সাত মাস আগে পালঘর নামক স্থানে দুজন সাধু এবং তাঁদের গাড়ির চালককে পিটিয়ে খুন করে উত্তেজিত জনতা। সেই ঘটনার বিচারের দাবিতে পথে নামলে এবার ফের নতুন করে অশান্তি শুরু হল মহারাষ্ট্রে।

বুধবার মুম্বাইয়ে পালঘর সাধু হত্যা কান্ডের দ্রুত বিচারের দাবিতে পথে নামে স্থানীয় বিজেপি নেতা কর্মীরা। কিন্তু গেরুয়া শিবিরের অভিযোগ, তাঁদের শান্তিপূর্ণ মিছিলে বাঁধা দেয় পুলিশ। শুধু তাই নয় মুম্বাইয়ের স্থানীয় এমএলএ এবং বিজেপি নেতা রাম কদম ও তাঁর সমর্থকদের পুলিশ আটকও করেছে বলে জানা গেছে। সূত্রের খবর, বিজেপি এমএলএ রাম কদমকে পুলিশ এদিন তাঁর বাড়ির সামনে থেকেই আটক করেছে।

জানা গেছে, এদিন ‘জন আক্রোশ যাত্রা’ নামে একটি মিছিলের আয়োজন করেছিল স্থানীয় বিজেপি। ওই মিছিলে পালঘর সাধু হত্যা কান্ডে সিবিআই তদন্তের দাবি জানিয়েছিলেন তাঁরা। এমএলএ রাম কদমের কথায়, “আমাদের মত প্রকাশের স্বাধীনতা মহারাষ্ট্র সরকার কীভাবে খর্ব করতে চাইছে আজকের ঘটনাই তার প্রমাণ। আমরা শান্তিপূর্ণ ভাবে পালঘর যাচ্ছিলাম, সেখানে গিয়ে আমরা মৃত সাধুদের স্মরণে মাটির প্রদীপ জ্বালাতাম। ঘটনার পর ২১২ দিন হয়ে গেছে কিন্তু এখনও পর্যন্ত মহারাষ্ট্র সরকারের তরফ থেকে কোনোরকম বিচার পাওয়া যায় নি। পালঘর থেকেই আমরা সুবিচারের জন্য আবেদন জানাব। মহারাষ্ট্র সরকারকে বিষয়টা সিবিআই তদন্তের জন্য দিতেই হবে।”

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত ১৬ এপ্রিল মহারাষ্ট্রের পালঘরে দুই সাধু ও তাঁদের গাড়ির চালককে রীতিমতো পিটিয়ে মেরে ফেলে উত্তেজিত জনতা। অনেকেই এই ঘটনাকে ধর্মীয় বিদ্বেষের রূপে দেখছিলেন। কথা উঠেছিল, সাধুদের পিটিয়ে মারার ঘটনার পিছনে থাকতে পারে মুসলমানদের হাত। রাত্রি বেলায় সিলভাসা যাওয়ার পথে এই ঘটনা ঘটে। মহারাষ্ট্র সরকারের তরফে দাবি করা হয়েছিল, চোর সন্দেহে ভুল করে ওই সাধুদের মারা হয়েছে। এই ঘটনায় সাম্প্রদায়িকতার বিষয়টিকে সম্পূর্ণ উপেক্ষা করা হয় সরকারের তরফে। কিন্তু এখনও পর্যন্ত বিচারের দাবিতে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছে বিজেপি।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close