খবররাজ্য

‘কাকা সাহিত্যিক, আমি ডক্টরেট’, বংশের গৌরব উল্লেখ করে জামিনের আবেদন পার্থর

মহানগর বার্তা ডেস্ক : বুধবারের পর শুক্রবার আবারও আলিপুর আদালতে পেশ করা হয় প্রাক্তন মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে(Partha Chatterjee)। এবারও চোখে জল তাঁর। কাতর গলায় বিচারকের কাছে জামিনের আর্জি করলেন তিনি। নিজের শারীরিক একাধিক অসুস্থতার কারণ দেখান পার্থ। তিনি বিচারকের উদ্দেশে বলেন, “স্যার আমি খুব অসুস্থ। বয়স হচ্ছে। কে আমাকে সাহায্য করবে? সারা দিন অনেক ওষুধ খাই। আপনার বিচারের প্রতি আস্থা রাখছি।”

ইডির হাতে ধৃত রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রীর ২৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত জেল হেফাজত হয়েছে। কিন্তু নিয়োগ দুর্নীতি তদন্তে মূল অভিযুক্ত হিসেবে পার্থর হেফাজত চায় সিবিআই। তাদের দাবি, রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রীকে নিজেদের হেফাজতে চেয়ে মধ্যশিক্ষা পর্ষদের প্রাক্তন সভাপতি কল্যাণময় গঙ্গোপাধ্যায়ের সঙ্গে মুখোমুখি বসিয়ে জেরা করতে চায় তারা। যদিও পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের (Partha Chatterjee) আইনজীবীর সওয়াল, “আমার মক্কেলকে কেন আদলতে আনা হলো জানি না। কী জন্য ডাকা হল, না জানলে সওয়াল করব কী করে? আমার মক্কেলকে হেনস্থা করা হচ্ছে।”

দু’পক্ষের সওয়াল জবাবের শেষে বিচারক পার্থের আইনজীবীকে প্রশ্ন করেন, তাহলে কি এই দুর্নীতি কাণ্ডে পার্থের(Partha Chatterjee) কোনো হাত নেই?এর প্রেক্ষিতে পার্থের আইনজীবী জবাব দেন, “ওঁর পিছনে কিছু হলে, উনি কী করবেন? সমাজের প্রতি পার্থের দায়বদ্ধতা প্রমাণিত। তা ছাড়া অভিযোগও এখনও প্রমাণিত নয়। তা ছাড়া উনি কোথাও পালিয়েও যাচ্ছেন না। তা হলে গ্রেফতারের কী প্রয়োজন?”

আরও পড়ুন: ‘পাকিস্তান ৭৫ বছর ধরে ভিক্ষার থালা নিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে’, স্বীকারোক্তি পাক প্রধানমন্ত্রীর

সবশেষে আদালতে পার্থ রাজনীতিতে তাঁর অবদানের কথা বলার জন্যে উঠে দাঁড়ান। তিনি বলেন, “দুর্নীতি মামলায় তার ভূমিকা কি? প্রাথমিক বোর্ড কিংবা এসএসসি স্বয়ংশাসিত দফতর। তারা প্রার্থীদের চয়ন করত… আমি অর্থনীতিতে স্নাতক।” পাশাপাশি নিজের পরিবারের মহিমা নিয়েও বলতে শুরু করেন পার্থ। তাঁর কথায়, “আমার কাকা প্রবাদপ্রতিম সাহিত্যিক ছিলেন। আমার মা-বাবা দু’জনেই ছিলেন উচ্চশিক্ষিত। আমি নিজে এমবিএ, ডক্টরেট। রামকৃষ্ণ মিশনের ছাত্র ছিলাম। দীর্ঘদিন একটি নামী সংস্থায় উঁচু পদে চাকরি করেছি। আমায় জামিন দেওয়া হোক।” এই বলতে বলতে আবারও কেঁদে ফেলেন। আদালত থেকে বেরোনোর সময় প্রাক্তন মন্ত্রীকে বলতে শোনা যায়, এবার মরে যাব। তাঁকে সম্পূর্ণভাবে ফাঁসানো হচ্ছে। ষড়যন্ত্রের শিকার হয়েছেন তিনি।

সবার খবর সঠিক খবর পড়তে চোখ রাখুন মহানগর বার্তায়

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
নিজের লেখা নিজে লিখুন
Close
Close