দেশ

“রিপাবলিক টিভি দেখার জন্য মাসে ৪০০ টাকা দেওয়া হত” টিআরপি কান্ডে বললেন এক সাক্ষী

মহানগরবার্তা ওয়েবডেস্ক: এবার টিআরপি কান্ডে মুখ পুড়ল জনপ্রিয় টিভি চ্যানেল রিপাবলিক টিভির। গতকালই মুম্বাই পুলিশ দাবি করেছিল অর্ণব গোস্বামী পরিচালিত এই টিভি চ্যানেলটি নিজেদের টেলিভিশন রেটিং পয়েন্ট বা টিআরপি সংক্রান্ত ভুয়ো তথ্য প্রচার করে। আজ তাঁরা এক অভিযুক্তের ডায়েরি ঘেঁটে রিপাবলিক টিভির বিরুদ্ধে তথ্যও জোগাড় করেছেন বলে জানা গেছে।

মুম্বাই পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, অভিযুক্ত বিশাল বেদ ভান্ডারি নামে ওই ব্যক্তির ডায়েরিতে বেশ কিছু বাড়ি সম্পর্কে তথ্য নথিভুক্ত করা আছে। ওই বাড়ি গুলিকে নাকি দিনের একটি নির্দিষ্ট সময়ে রিপাবলিক টিভি দেখার জন্য নিয়মিত টাকা দেওয়া হত, এমনটাই অভিযোগ উঠেছে বিশাল বেদ ভান্ডারি নামে ওই ব্যক্তির উপর। তাঁকে গ্রেফতার করেছে মুম্বাই পুলিশ। পুলিশ সূত্রে খবর, ওই ব্যক্তি নাকি BARC ব্যারোমিটার নামক টিআরপি গণনাকারী যন্ত্র লাগানো বাড়ি গুলির সঙ্গে এই ব্যবস্থা করেছিলেন, যা নিজেই ফাঁস করেছেন অভিযুক্ত।

মুম্বাই পুলিশ ওই নির্দিষ্ট বাড়ি গুলিতে গিয়ে তদন্ত করলে সেখানকার বাসিন্দারা বলেন, অভিযুক্ত বিশাল বেদ ভান্ডারি তাঁদের মাসিক চুক্তির ভিত্তিতে রিপাবলিক টিভি দেখার জন্য টাকা দিতেন। সূত্রের খবর, এই লেনদেনের প্রমাণ হিসেবে মেসেজেরও সন্ধান পেয়েছে মুম্বাই পুলিশ। টিআরপি কান্ডে জনৈক এক সাক্ষীর বক্তব্য, ২০১৯ সালে তাঁদের বাড়িতে টিআরপি গণনার জন্য যন্ত্র লাগাতে লোক আসে।

“যন্ত্রটি বসানোর জন্য লোকটি আমাদের মাসে ৪৮৩ টাকা করে দেবে বলেছিলেন। ২০২০ সালের জানুয়ারিতে যখন বিশাল ভান্ডারির সঙ্গে দীনেশ বিশ্বকর্মা নামে একজন টিআরপি দেখার জন্য এসেছিলেন, আমাদের ওঁরা জিজ্ঞেস করেছিলেন আমরা রিপাবলিক টিভি দেখি কিনা। আমি না বলেছিলাম কারণ আমার চ্যানেলটি পছন্দ না ” বলেন এক সাক্ষী। “এরপর ওঁরা আমাকে রোজ রিপাবলিক টিভি দেখার জন্য আরও ৪০০ টাকা দেওয়ার প্রস্তাব দেন। আমি রাজি হলে তৎক্ষণাৎ ক্যাশ টাকাও দেন” বলেন তিনি।

প্রসঙ্গত, রিপাবলিক টিভির টিআরপি রেটিং গত কিছু দিন যাবৎ আচমকাই অস্বাভাবিক হারে অনেকখানি বেড়ে যায়। আর এতেই সন্দিহান হয়ে ওঠে ভারতীয় টিভি চ্যানেলগুলির রেটিং প্রদানকারী সংস্থা BARC। অবশ্য এই টিআরপি কান্ডে রিপাবলিক টিভির সঙ্গে নাম জড়িয়েছে আরো দুটি টিভি চ্যানেলের। বাকি দুটি চ্যানেলের প্রধানকে গ্রেফতার করা হলেও রিপাবলিক টিভির মালিক অর্ণব গোস্বামী এখনও অধরা। মুম্বাই পুলিশ কমিশনার পরম বীর সিং বলেছেন শীঘ্রই জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তলব করা হবে তাঁকে। অর্ণব গোস্বামী যদিও এই ঘটনার সমস্ত দায় সম্পূর্ণ রূপে অস্বীকার করেছেন।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close