রাজ্যরাজনীতি

শুভেন্দু বিজেপিতে যাবে জেনে আগে থেকে ব্যবস্থা নিয়েছিল তৃণমূল, বিস্ফোরক প্রশান্ত কিশোর

মহানগরবার্তা ওয়েবডেস্ক: একুশের বিধানসভা নির্বাচনের আগে বঙ্গ রাজনীতির রংবদল নিয়ে জারি তরজা। শুভেন্দু অধিকারীর তৃণমূল থেকে বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর থেকে যে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছে বাংলায়, তার জল গড়িয়েছে অনেক দূর। এই রাজনৈতিক পট পরিবর্তনের আবহেই এবার ফের মুখ খুললেন প্রশান্ত কিশোর।

দীর্ঘদিন ধরেই তৃণমূল কংগ্রেসের ঘর ভাঙার জন্য কাঠগড়ায় দাঁড় করানো হচ্ছিল শাসকদলের রাজনৈতিক উপদেষ্টা প্রশান্ত কিশোরকে। সদ্য তৃণমূল ত্যাগী নেতা শুভেন্দু অধিকারীকে নিয়ে এদিন কড়া ভাষায় আক্রমণ শানালেন তিনি। এদিন প্রশান্ত কিশোর বলেন, “রাজনৈতিক উচ্চাকাঙ্ক্ষা থাকা ভাল, কিন্তু নিজের ওজন সম্পর্কে ভুল ধারণা থাকা উচিত নয়।” বস্তুত, শুভেন্দু অধিকারীর দলবদলের আগে তাঁর সঙ্গে একাধিকবার আলোচনায় বসেছিলেন প্রশান্ত কিশোর। কিন্তু তাতে কিছুই ফল হয় নি।

এদিন সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যম টাইমস নাও (Times now)-এর কাছে একটি সাক্ষাৎকারে প্রশান্ত কিশোর বলেন, “ওঁর (শুভেন্দু অধিকারীর) অবশ্যই রাজনৈতিক উচ্চতা রয়েছে , তবে নিজের ওজন সম্পর্কে ভুল ধারণা থাকা উচিত নয়। উচ্চাকাঙ্ক্ষায় চালিত হয়ে কেউ মনে করতে পারে দলের সাময়িক ক্ষতিতে তাঁর বৃহত্তর ভালো হতে পারে। কিন্তু তা হয় না।” বস্তুত শুভেন্দু অধিকারীর দলত্যাগের পর এই প্রথম এত স্পষ্ট করে সাংবাদিকদের সামনে মুখ খুলতে দেখা গেল তৃণমূলের ভোট কুশলী প্রশান্ত কিশোরকে।

পিকে এদিন আরও বলেন, “উনি নিজেই বলেছেন ২০১৪ সাল থেকে অমিত শাহের সঙ্গে ওঁর যোগাযোগ রয়েছে। এটা ঠিক যে শুভেন্দু দলের যুব সভাপতি ছিলেন। কিন্তু তারপর তো শুভেন্দুকে দলের অনেক বড় দায়িত্ব দেওয়া হয়। সেটা বলা হচ্ছে না কেন?” শুভেন্দু অধিকারীর অমিত শাহ যোগ কি জানতেন তৃণমূলের নেতারা? এর উত্তরে এদিন পিকের মন্তব্য ছিল তাৎপর্যপূর্ণ। তিনি বলেন , “আমরা অবশ্যই জানতাম। সেকারণেই শুভেন্দুর সাংগঠনিক দায়িত্ব কমানো হয়েছিল। সেই সিদ্ধান্ত যে সঠিক ছিল তা এখন প্রমাণিত।”

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ১৯ ডিসেম্বর মেদিনীপুরে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সভায় গেরুয়া পতাকা হাতে তুলে নেন প্রাক্তন পরিবহন মন্ত্রী এবং তৃণমূল নেতা শুভেন্দু অধিকারী। তৃণমূল ত্যাগের আগে থেকেই দলের অভ্যন্তরে নানা বিষয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করছিলেন তিনি। আর তাঁর অসন্তোষের অন্যতম কেন্দ্র বিন্দু যে ছিল শাসকদলের ভোট উপদেষ্টা প্রশান্ত কিশোর, সে বিষয়টাও চাপা ছিল না একেবারেই।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close