রাজ্য

মদের দাম বাড়ায় বিক্ষোভ ক্রেতাদের, সরগরম বীরভূম

মহানগরবার্তা ওয়েবডেস্ক: বিশ্ব জুড়ে করোনা ভাইরাসের অতিমারীর মাঝেই দেশে চলছে উৎসবের মরশুম। দিওয়ালি ভাইফোঁটার পর এবার শুরু হয়েছে ছট পুজোর প্রস্তুতি। অতিমারীর মাঝে উৎসবের মরশুমে এখন অগ্নি মূল্য বাজার। আলু পেঁয়াজ থেকে শুরু করে যাবতীয় সবজি এমনকি মাছের দামও চড়েছে বেজায়। কিন্তু এসব নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য নয়, মূল্যবৃদ্ধিতে এবার জনতার রোষ দেখা গেল অন্য জায়গায়।

উৎসবের মরশুমে দাম বেড়েছে মদের। আর তাই নিয়েই এবার বিক্ষোভে সামিল হলেন বীরভূমের মানুষ। মদের দাম বেড়ে যাওয়ায় সুরাপ্রেমীদের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে যে অসন্তোষ দানা বাঁধছে ,এদিন তারই ছোটখাটো এক বহিঃপ্রকাশ দেখা গেল বীরভূমের এক মদের দোকানের সামনে। বিক্ষোভকারীরা প্রশ্ন তুলেছেন দিন দিন এভাবে মদের দাম বাড়িয়ে দেওয়ার কারণ কী? স্বভাবতই এহেন প্রশ্নের মুখে অস্বস্তিতে পড়েছেন দোকানের কর্মচারীরা।

জানা গেছে, ঘটনাটি ঘটেছে বীরভূম জেলার সিউড়ির চৌরাস্তার মোড়ে একটি মদের দোকানের সামনে। সোমবার সকালে রোজকার মতো দোকান খোলার পর থেকে মদ কেনাবেচা চলছিল পুরোদমে। এক ক্রেতার প্রতিবাদে গন্ডগোলের সূচনা হয়। তিনি মদের দাম বাড়ানো নিয়ে প্রশ্ন তুলতেই তাঁর সঙ্গে গলা মেলান বাকিরাও।

এ ব্যাপারে ওই দোকানের ক্রেতাদের মধ্যে চন্দন লাহিড়ী নামে এক ব্যক্তির কথায়, ‘‘আত্মীয়-বন্ধুবান্ধবদের যে একটু মদ খাওয়াব, তারও উপায় নেই। সোমবার কিনে নিয়ে গিয়েছি যে দামে, পরের দিনই এত দাম বেড়ে গেল? আমরা চাই সরকার এটা নিয়ে ভাবুক।’’ শুধু তাই নয়, গ্রাহকদের একাংশের অভিযোগ, প্যাকেটে পুরনো দামই লেখা আছে। কিন্তু তা সত্ত্বেও বেশি দাম নিচ্ছেন দোকানদার। এবিষয়ে প্রশ্ন করা হলে ওই দোকানের মালিক রোহন দে বলেছেন, তাঁরা ন্যায্য দামেই বিক্রি করছেন মদ। ‘‘আমাদের কিছু করার নেই, কেনা দাম যেমন পড়ছে, আমরা তেমন বিক্রি করছি। সরকারি নিয়ম অনুযায়ী বিক্রি করছি। সব নথিপত্র রয়েছে। এতে কেউ বিক্ষোভ দেখালে আমাদের কিছু করার নেই” বলেন তিনি।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
নিজের লেখা নিজে লিখুন
Close
Close