গ্রিন রুম

মন্ত্রীর বিতর্কিত মন্তব্য , ‘রণবীর-আলিয়াকে বাধা দেওয়া হয়নি, ওঁরা নিজেরাই মন্দিরে যেতে চাননি’

মহানগর বার্তা ডেস্ক : গো-মাংস ভক্ষণ নিয়ে মন্তব্যের জেরে রণবীর কাপুর ও আলিয়া ভাটকে উজ্জয়িনীর মহাকাল মন্দিরে প্রবেশ করতে না দেওয়ার ঘটনায় যখন উত্তাল গোটা দেশ তখন উল্টো সুর মধ্যপ্রদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নরোত্তম মিশ্রের মুখে। তাঁর সাফ কথা, উজ্জিয়িনীর মহাকাল দর্শনে রালিয়া জুটিকে কোনও বাধা দেওয়া হয়নি। বরং ‘অন্য এক বিষয়ে’ প্রতিবাদের কারণে মন্দিরে না ঢোকার সিদ্ধান্ত নেন ওই সেলেব দম্পতি– দাবি মন্ত্রীর।

আরও পড়ুন:‘বিফ’ খাওয়ার মন্তব্যের জের , রণবীর-আলিয়াকে উজ্জয়নী মন্দিরে ঢুকতে বাঁধা বজরং দলের

একটি সংবাদ মাধ্যমকে তিনি বলেন,”এক অন্য বিষয়ে বিক্ষোভ হচ্ছিল। মন্দিরে গিয়ে তাঁদের পুজো দেওয়ার ব্যাপারে কোনও বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়নি। যারা তাঁদের সঙ্গে ছিলেন তাঁরা মন্দিরে ঢুকে পুজো দিয়েছেন। সব ঠিকঠাকই ছিল।” মধ্যপ্রদেশ সরকারের মুখপাত্র নরোত্তম মিশ্র আরও যোগ করেন,”তাঁদের মন্দিরে যাওয়ার জন্য অনুরোধ করা হয়। কিন্তু বিক্ষোভ হচ্ছে দেখে ওঁরা আর প্রবেশ করেননি। সিদ্ধান্ত ওঁরাই নিয়েছেন”। প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার মধ্যপ্রদেশের উজ্জয়নীর মহাকাল মন্দিরে পুজো দিতে গিয়েছিলেন রণবীর(Ranbir Kapoor) ও আলিয়া। সঙ্গে ছিলেন পরিচালক অয়ন মুখোপাধ্যায়। আগামিকাল অর্থাৎ শুক্রবার মুক্তি পাবে তাঁদের ছবি ‘ব্রহ্মাস্ত্র’। এই ছবি হিন্দু পুরাণ নিয়ে। তার আগেই তাই স্বামীকে নিয়ে সেখানে পৌঁছে গিয়েছিলেন আলিয়া। তবে বিভিন্ন ভাইরাল ভিডিয়োতে দেখা গিয়েছে, মন্দির চত্বরে প্রবেশের সঙ্গে সঙ্গেই তাঁদেরকে ঘিরে শুরু হয় তুমুল বিক্ষোভ। বজরং দলের স্থানীয় নেতা অঙ্কিত জিন্দল আগেই হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন, রণবীরের গোমাংস নিয়ে বক্তব্যের কারণে কোনওভাবেই তাঁকে মহাকালেশ্বর মন্দিরে ঢুকতে দেওয়া হবে না। সেই মতোই বুধবার বজরং দলের কর্মী-সমর্থকরা ওই দম্পতিকে দেখা মাত্রই কালো পতাকা দেখাতে শুরু করেন। ঘটনাস্থলে হাজির হয় পুলিশের বাহিনী। আন্দোলনকারীদের সঙ্গে রীতিমতো হাতাহাতি শুরু হয়ে যায় তাদের। ক্রমশই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে পরিস্থিতি।

সবার খবর সঠিক খবর পড়তে চোখ রাখুন মহানগর বার্তায়

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
নিজের লেখা নিজে লিখুন
Close
Close