fff
বিনোদন

Ranveer Singh এর নগ্ন ছবি নিয়ে এত মাতামাতি কেন! প্রশ্ন তুললেন মহিলা কমিশনের প্রধান

Ranveer Singh

মহানগর বার্তা ওয়েবডেস্কঃ রণবীর সিংয়ের (ranveer singh) নগ্ন ফটোশুট ঘিরে বিতর্কের শেষ নেই(ranveer singh new viral photo)। এবার এই নিয়ে মুখ খুললেন দিল্লির মহিলা কমিশনের প্রধান স্বাতী মালিওয়াল। তিনি অবশ্য রণবীর সিংয়ের (ranveer singh) সরাসরি সমালোচনা না করে গোটা বিষয়টি নিয়েই কিছুটা বিরক্তি প্রকাশ করেন।

দিল্লির মহিলা কমিশনের প্রধান ট্যুইট করে বলেছেন, “এদেশে মেয়েদের নগ্ন ছবি প্রতিমুহূর্তে আমজনতাকে খাওয়ানো হয়। সম্প্রতি একজন অভিনেতার নগ্ন ছবি সংবাদ মাধ্যমের প্রাইম টাইম বিতর্কের বিষয় হয়ে উঠেছে। কেন এই নগ্ন ছবি তুলেছেন তা ওই অভিনেতাই ভালো বলতে পারবেন। কিন্তু দেশে কী কোন‌ও প্রকৃত ইস্যু নেই, যে এইটা নিয়ে আলোচনা করতে হবে?”

স্বাতী মালিওয়ালের ট্যুইট থেকে স্পষ্ট তিনি রণবীর সিংয়ের (ranveer singh) নগ্ন ছবিকে অনেকের মতোই ভালোভাবে দেখছেন না। তবে এই নিয়ে সরাসরি আলোচনায় ঢুকতে চান না দিল্লি মহিলা কমিশনের প্রধান। কিন্তু এই ‘লঘু’ বিষয়টি ঘিরে এত মাতামাতি কেন, তা ভেবেই বিস্মিত হয়েছেন। অন্যদিকে রামগোপাল ভার্মা, বিদ্যা বালানের মতো বলিউড সেলেবরাও রণবীর সিংয়ের (ranveer singh) এই ফটোশুটকে সমর্থন করার পাশাপাশি, বিষয়টি নিয়ে অতিরিক্ত জলঘোলা করার তীব্র বিরোধিতা করেছেন।

মূল ঘটনা কী?

রণবীর সিং (ranveer singh) গত সপ্তাহে নিজের সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টে পরপর বেশ কয়েকটি নগ্ন ছবি শেয়ার করেন, যা মুহূর্তের মধ্যে নেট দুনিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায়। পুরুষেরাও যে নগ্ন ফটোশুট করতে পারে, এটা হয়তো অনেকেরই ধারণার বাইরে ছিল। ফলে পক্ষে-বিপক্ষে মন্তব্যের ঝড় বয়ে যায় (ranveer singh trending)। অনেকেই রণবীর সিংয়ের দেহসৌষ্ঠব দেখে কার্যত ভাষা হারান! বিশেষ করে রণবীরের মহিলা ভক্তকুলের আবেগ ও উচ্ছ্বাস ছিল দেখার মতো।

ওই সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টে রণবীর সিং (ranveer singh) জানান বিখ্যাত পেপার ম্যাগাজিনের একটি প্রচ্ছদ হিসেবেই তিনি এই ফটোশুট করেছেন। সেইসঙ্গে পরে স্পষ্ট করে দেন একজন অভিনেতা ও মডেল হিসেবে প্রয়োজনে নগ্ন হতে তাঁর কোন‌ও আপত্তি নেই।

বিতর্ক কোথায়?

কিন্তু গোটা ব্যাপারটি সকলে ভালো চোখে নেয়নি। স্বাভাবিকভাবেই অনেকেই যেমন রণবীর সিংয়ের (ranveer singh) এই নগ্ন ছবি দেখে আপ্লুত হয়েছেন, তাঁর সাহসের প্রশংসা করতে এগিয়ে এসেছেন। তেমন‌ই অনেকে গেল গেল সুর তুলে সমালোচনায় নেমে পড়েছেন। মুম্বাইয়ের এক এনজিও ইতিমধ্যেই ভারতীয় নারীদের ভাবাবেগে আঘাত (women’s sentiments) ও তাঁদের ভাবনাকে কলুষিত করার অভিযোগ তুলে রণবীর সিংয়ের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছে।

অনেকেই আবার বলছেন নারী হোক বা পুরুষ, কেউই পণ্য নয়। নারীর নগ্নতা যেমন আপত্তিকর, তেমনই রণবীর সিং নগ্ন ফটোশুট করে পুরুষের দেহকে পণ্য হিসেবে তুলে ধরেছেন। দিল্লি মহিলা কমিশনের প্রধান স্বাতী মালিওয়াল তাঁর ট্যুইটের মাধ্যমে ঠিক এই কথাই তুলে ধরেছেন। তিনি একদিকে যেমন মহিলাদের নগ্ন ছবিকে কেন্দ্র করে ঘটে চলা অপরাধের সমালোচনা করেছেন, তেমনই রণবীর সিংয়ের এই ফটোশুটকে কেন্দ্র করে পুরুষের নগ্নতা‌ও যে কাম্য নয় তা বোঝাতে চেয়েছেন। তবে তাঁর সবচেয়ে বেশি ক্ষোভ বোধহয় জাতীয় স্তরের সংবাদ মাধ্যমগুলির আলোচনার বিষয় নির্বাচন নিয়ে। একজনের নগ্ন ফটোশুট কী করে দেশের সমস্ত জরুরী সমস্যাকে ছাপিয়ে গিয়ে প্রাইম টাইমে বিতর্কের বিষয় হতে পারে তা নিয়ে প্রশ্ন তুলে সংবাদমাধ্যমকেও এক হাত নিয়েছেন স্বাতী মালিওয়াল।

এর আগে অভিনেতা মিলিন্দ সোমান‌ও (milind soman) নগ্ন ফটোশুট করে একই রকমভাবে সমালোচনার মুখে পড়েছিলেন।

রণবীরের যুক্তি কী?

রণবীর সিং (ranveer singh) বা তাঁর ভক্তরা শুধু নয়, এমনকি এই বিতর্কে স্বামীর পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন দীপিকা পাড়ুকোন। তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে ‘পার্টনারের’ এই ফটোশুটের উচ্চশিত প্রশংসা করেছেন। এছাড়াও বিদ্যা বালান, রামগোপাল ভার্মা, বিবেক অগ্নিহোত্রীরাও রণবীর সিংয়ের এই নগ্ন ফটোশুটে উচ্চমানের শিল্প খুঁজে পেয়েছেন।

রণবীর ক্যাম্প গোটা বিষয়টাকে শিল্পের চোখে দেখতে চাইছে। তাদের বক্তব্য, শিল্পে নগ্নতা স্বাভাবিক বিষয়। এতে কোন‌ও যৌনতা থাকে না। বরং শরীর যে মানুষের প্রকাশের হাতিয়ার, তাও যে অনেক অভিব্যক্তি ও আবেদন রাখতে পারে তা শিল্পকর্মের মধ্যে দিয়েই ফুটে ওঠে। আর ফটোশুট আধুনিক সময়ে অন্যতম শিল্পধারা হয়ে উঠেছে। সেখানে কেউ যদি স্বেচ্ছায় নিজের শরীরকে শিল্পের হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করেন তাতে গেল গেল রব তোলার কিছু নেই। বরং কারোর ভালো না লাগলে তিনি দেখবেন না।

উল্লেখ্য, রণবীর সিং (ranveer singh) বরাবরই নিজের শরীর নিয়ে ছুঁতমার্গ মুক্ত। তাঁর প্রথম সিনেমা সাঁওয়ারিয়াতেই নগ্ন দৃশ্যে অভিনয় করেছিলেন তিনি। যা সেই সময় ব্যাপক প্রশংসাও পেয়েছিল। একটি সাক্ষাৎকারে রণবীর সিং নিজেই জানিয়েছিলেন, তিনি বলিউডের পা রাখার আগে একসময় ‘জিগোলো’ অর্থাৎ পুরুষ দেহকর্মীর কাজ করতেন। সেই রণবীরের কাছে নগ্ন ফটোশুট যে কোনও কঠিন ব্যাপার হবে না তা সহজেই অনুমান করা যায়।

 

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
Close
Close

Adblock Detected

Please Disable your ADBlocker!