খবর

নাবালিকা পড়ুয়াকে ধর্ষণের অভিযোগ, গ্রেফতার কর্নাটকের মুরুঘা মঠের প্রধান সাধু শিবমূর্তি

মহানগর বার্তা ডেস্ক: টানা এক সপ্তাহের প্রবল প্রতিবাদ বিক্ষোভের পর টনক নড়ল কর্নাটক প্রশাসনের। বৃহস্পতিবার রাতে দুই কিশোরীকে যৌন নির্যাতনের (Rape) ঘটনায় অভিযুক্ত লিঙ্গায়েত ধর্মগুরু শিবমূর্তি মুরুগা শারানারুকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তিনি কর্নাটকের চিত্রাদূর্গ জেলার জগৎগুরু মঠের প্রধান ছিলেন। কর্নাটকের অতিপ্রভাবশালী লিঙ্গায়েত সম্প্রদায়ের মধ্যে এই ধর্মগুরুর যথেষ্ট প্রভাব আছে।

চিত্রাদূর্গ জেলার পুলিশ সুপার পর পরশুরাম কে শিবমূর্তির গ্রেফতারের খবর নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানিয়েছেন এই ধর্মগুরুকে পুলিশ গ্রেফতার করে জেরা শুরু করেছে। তাঁকে শুক্রবার আদালতে তুলে পুলিশ হেফাজতে চাওয়া হবে।

সপ্তাহখানেক আগে শিবমূর্তি মুরুগা শারানারুর বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠে, তিনি মঠের মধ্যেই দুই দলিত কিশোরীর উপর যৌন নির্যাতন(Rape) চালান। এই নিয়ে একটি এনজিও প্রশাসনের দ্বারস্থ‌ও হয়। তবুও ওই ধর্মগুরুকে গ্রেফতার করার বিষয় যথেষ্ট ইতস্তত করছিল বিজেপি সরকার। এরই প্রতিবাদে গত এক সপ্তাহ ধরে কর্ণাটকের দলিত সংগঠনগুলি রাজধানী বেঙ্গালুর সহ রাজ্যের সর্বত্র বিক্ষোভ প্রতিবাদ দেখাতে থাকে। এমনকি বিরোধীরা তাঁকে গ্রেফতারের দাবি তোলে।

আরও পড়ুন:“মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ল্যাং মারলে, ঈশ্বর পাল্টা পদাঘাত করবে”:  দেবাংশু

রাজ্যজুড়ে বিক্ষোভ প্রতিবাদ সমালোচনা সত্ত্বেও বিজেপি সরকারের ইতস্তত করার কারণ সম্ভবত ভোট ব্যাঙ্কের হিসেব। কর্নাটকের প্রভাবশালী বিজেপি নেতা তথা প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ইয়েদুরাপ্পা এই লিঙ্গায়েত সম্প্রদায়ের মানুষ। তাঁর সঙ্গে এই ধর্মগুরুর যথেষ্ট সুসম্পর্ক আছে। আগামী বছর কর্নাটকে বিধানসভা নির্বাচন হওয়ার কথা। তার আগে এই ধর্মগুরুকে গ্রেফতার করলে লিঙ্গায়েতরা চটে যেতে পারে। আর কর্নাটকের প্রচলিত নিয়মই হল, যে দলের পাশ থেকে লিঙ্গায়েতরা সরে যাবে তারা আর ক্ষমতায় থাকতে পারবে না। এদিকে কিছুদিন আগে এই লিঙ্গায়েত ধর্মগুরুই রাহুল গান্ধিকে সংবর্ধনা জানিয়েছিলেন।

আরও পড়ুন:সন্ধে ৭টার পর কাজ করানো যাবে না মহিলাদের!

তবুও চারিদিকে প্রবল সমালোচনা ও চাপের মুখে পড়ে শেষ পর্যন্ত ঢোক গিলতে বাধ্য হল বাসবরাজ বোম্মাইয়ের সরকার। যিনি নিজেও একজন লিঙ্গায়েত সম্প্রদায়ের মানুষ।

সবার খবর সঠিক খবর পড়তে চোখ রাখুন মহানগর বার্তায়

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
নিজের লেখা নিজে লিখুন
Close
Close