বিনোদন

“সত্যির থেকে বড় শক্তি আর কিছু নেই”, সুশান্ত মামলায় এবার রিয়ার পাশে দাঁড়ালেন রিতেশ দেশমুখ

মহানগর বার্তা ওয়েবডেস্কঃ এবার রিয়া চক্রবর্তীর সমর্থনে মুখ খুললেন বলিউড তারকা রিতেশ দেশমুখ। রিয়া তার প্রতিবেশীর “মিথ্যা এবং মনগড়া অভিযোগের” বিরুদ্ধে সিবিআই এর কাছে অভিযোগ দায়ের করেছেন। এরপরেই রিতেশ দেশমুখ রিয়া চক্রবর্তীকে টুইট করে লেখেন “তোমার কাছে অনেক শক্তি আছে। জেনে রেখো সত্যির থেকে বড় শক্তি আর কিছু নেই।”

এর আগেই অবশ্য অনেক বলিউড তারকা রিয়া চক্রবর্তী সমর্থনে মুখ খুলেছিলেন। মাদক রাখার অভিযোগে আদালত যখন রিয়াকে জেলে পাঠায়, তখন তাপসী পান্নু, স্বরা ভাস্বর, অনুরাগ কাশ্যপ সহ বলিউডের অনেকেই রিয়ার পক্ষে মুখ খুলেছিল। তাদের বক্তব্য ছিল সুশান্ত সিং রাজপুত হত্যা রহস্যে রিয়া চক্রবর্তীকে বলির পাঁঠা করা হচ্ছে। যেহেতু মানুষের মনে সুশান্তের মৃত্যু নিয়ে প্রশ্ন চিহ্ন তৈরি হয়েছে, তাই রিয়া চক্রবর্তীকে খাড়া করে যাবতীয় দায়ভার ঝেড়ে ফেলতে চাইছে সংশ্লিষ্ট মহল। একই সঙ্গে রাজনৈতিক স্বার্থে সুশান্তের মৃত্যুকে ব্যবহার করার অভিযোগও তোলা হয়েছিল বলিউডের একাংশের পক্ষ থেকে।

মাদক কাণ্ডে রিয়াকে অভিযুক্ত করে বাইকুল্লা জেলে পাঠানো হয়। প্রায় এক মাস জেলে থাকার পর জামিনে মুক্তি পেয়েছেন রিয়া। সেই সঙ্গে বিশেষ সিবিআই আদালত জানিয়েছে যে মাদকচক্রের সঙ্গে রিয়া চক্রবর্তী কোনভাবেই যুক্ত নয়। তিনি সুশান্তকে জোর করে মাদক দিতেন না। যদিও রিয়ার ভাই সৌভিক চক্রবর্তী এখনো জামিন পাননি। জামিনে মুক্ত হওয়ার পর রিয়া তার প্রতিবেশী ডিম্পল তাওয়ানির বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ করে ভাবমূর্তি নষ্ট করার অভিযোগ আনেন। প্রসঙ্গত তার এই প্রতিবেশী অভিযোগ করেছিলেন ১৩ জুন সুশান্ত সিং রাজপুত রিয়াকে তার বাড়িতে গাড়ি করে পৌঁছে দিয়ে যায় আর ১৪ তারিখ সুশান্তের রহস্যজনক মৃত্যু ঘটে। রিয়ার বক্তব্য এই অভিযোগ সম্পূর্ণ মন গড়া। ১৩ জুন এরকম কোনো ঘটনাই ঘটেনি। একই সঙ্গে রিয়া জানিয়েছেন সুশান্তের মৃত্যু নিয়ে তার বিরুদ্ধে যেভাবে একের পর এক মনগড়া ও ভিত্তিহীন অভিযোগ নানা মহল থেকে আনা হয়েছিল, তিনি তার বিরুদ্ধে যথোপযুক্ত আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেবেন। সেইসঙ্গে রিপাবলিক টিভি যেভাবে রিয়া চক্রবর্তীকে মাদক কান্ডের পান্ডা বানানোর চেষ্টা করেছিল তার বিরুদ্ধেও সিবিআই এর কাছে অভিযোগ জানিয়েছেন রিয়া।

প্রসঙ্গত সুশান্ত সিং রাজপুত হত্যাকাণ্ডের তদন্ত প্রথমে মুম্বাই পুলিশ করলেও পরবর্তীতে সুশান্তের বাবা অভিযোগের ভিত্তিতে ও সুপ্রিম কোর্টের আদেশ তদন্তভার সিবিআইয়ের হাতে যায়। সুশান্তের পরিবার অভিযোগ করেছিলেন তার মৃত্যুর পিছনে রিয়া চক্রবর্তী ও তার পরিবারের হাত আছে। একইসঙ্গে বিহার পুলিশ সুশান্ত সিং রাজপুত মৃত্যু রহস্যে অতি সক্রিয় হয়ে দাবি জানিয়েছিল যে আত্মহত্যা নয়, সুশান্ত কে খুন করা হয়েছে। যদিও অতিসম্প্রতি এইমস জানিয়ে দিয়েছে সুশান্ত আত্মহত্যা করেছেন। খুনের কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close