বিনোদন

কভার ফটোতে রিয়ার ছবি! সানন্দা ম্যাগাজিন বয়কটের ডাক নেটিজেনদের

মহানগরবার্তা ওয়েবডেস্ক: সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু মামলায় দেশের বিচার বিভাগের কাছে কার্যত ক্লিনচিট পেয়ে গেছেন রিয়া চক্রবর্তী। কিন্তু সুশান্ত ভক্ত এবং নেটিজেনদের কাছে এখনও পরিস্থিতির খুব একটা পরিবর্তন হয় নি। তাঁদের কাছে প্রিয় নায়কের জীবনে এখনও সেই ‘ভিলেন’ রিয়া। আর তাই রিয়া চক্রবর্তীর ছবি নিজেদের কভার পেজে ব্যবহার করে নেট নাগরিকদের রোষের মুখে পড়ল ‘সানন্দা’ ম্যাগাজিন।

জানা গেছে, গত ৩০ অক্টোবর জনপ্রিয় ম্যাগাজিন ‘সানন্দা’র একটি সংখ্যা প্রকাশিত হয় যেখানে কভার পেজে রিয়া চক্রবর্তীর ছবি ব্যবহৃত হয়েছে। শুধু তাই নয়, রিয়া চক্রবর্তীর ছবির নীচে লেখা রয়েছে,”মেয়েরা কি আদেও নিরাপদ?” বস্তুত, পুরুষতান্ত্রিক সমাজের চোখ দিয়ে আজও মেয়েদের কিভাবে দেখা হয়, রিয়া চক্রবর্তীর সঙ্গে হওয়া ঘটনার দৃষ্টান্ত দিয়ে তা আলোচিত হয়েছে ওই ম্যাগাজিনে।পাঁচদিন আগে ‘সানন্দা’ ম্যাগাজিনের ফেসবুক পেজ থেকে সেই ৩০ অক্টোবরের সংখ্যার কভার পেজের ছবিটি শেয়ার করা হয়েছিল। আর তারপরেই নেটিজেনদের তুমুল সমালোচনা ও বিক্ষোভের মুখে পড়ে সানন্দা।

রিয়া চক্রবর্তী যে জনতার আদালতে এখনও চরম অপরাধী, সে কথাই বারবার উঠে এসেছে ‘সানন্দা’র ওই পোস্টের একের পর এক মন্তব্যে। কেউ বলেছেন, “কিভাবে আপনারা এই মেয়েটার সপক্ষে কথা বলছেন? এই গ্রহে মনে হয় মানবিকতা বলে আর কিছু নেই।”, আবার কারোর অভিযোগ, বাজারে ক্রম অবনতি ঠেকাতেই টিআরপি বাড়ানোর জন্য ‘সানন্দা’ রিয়া চক্রবর্তীর মতো একজন “ড্রাগচক্রী” এবং “খুনি”কে কভার পেজের জন্য বেছে নিয়েছেন। কেউ আবার আরো এক ধাপ এগিয়ে গিয়ে মন্তব্য করেছেন, “এদের মতো মহিলাদের থেকে ছেলেরা কতটা নিরাপদ সেটাই স্টোরি বানান।” সব মিলিয়ে নেটিজেনরা একজোট হয়ে বয়কটের ডাক দিয়েছেন ‘সানন্দা’ ম্যাগাজিনকে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, প্রায় চার মাস আগে জনপ্রিয় বলিউড অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের মুম্বাইয়ের ফ্ল্যাট থেকে তাঁর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধারের পর থেকেই সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে তা নিয়ে তরজা তুঙ্গে। প্রিয় অভিনেতার মৃত্যুর জন্য ক্ষুব্ধ ভক্তরা দায়ী করেন তাঁর বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তীকে। ঘটনার তদন্তে আদালতে রিয়ার বিরুদ্ধে বিশেষ প্রমাণ পাওয়া না গেলেও জনগণ তাঁকে ক্ষমা করেননি। ‘সানন্দা’ ম্যাগাজিনের ঘটনা আরো একবার সেই কথাই প্রমাণ করে দিল।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close