আন্তর্জাতিক

‘মোদিকে নিয়ে বিদ্রুপের পর আমার জনপ্রিয়তা কমে গেছে’, স্বীকার করলো নোবেল

মহানগরবার্তা ওয়েবডেস্ক: ভারতের জনপ্রিয় রিয়েলিটি শো থেকে সাফল্যের পথে যাত্রা শুরু হয়েছিল তাঁর। কিন্তু জনপ্রিয়তার শিখর থেকে এক ধাক্কায় নীচে নেমে আসতেও বেশি সময় লাগে নি বাংলাদেশের সঙ্গীত শিল্পী মাইনুল আহসান নোবেল-এর। ‘সারেগামাপা’ থেকে বেরোনোর পরই একের পর এক বিতর্ক পিছু নিয়েছিল তাঁর। নানা কারণে এখন এদেশে তাঁর জনপ্রিয়তা কমে গেছে অনেকটাই। এবার নিজেকে নিয়ে তৈরি হওয়া নানা বিতর্ক নিয়ে মুখ খুললেন নোবেল।

জানা গেছে, গত শনিবার অর্থাৎ ৭ই নভেম্বর জন্মদিন ছিল বাংলাদেশের জনপ্রিয় প্লেব্যাক সিঙ্গার এবং বাংলা ‘সারেগামাপা’-র তৃতীয় স্থানাধিকারী মাইনুল আহসান নোবেলের। সেই উপলক্ষ্যেই একটি সাক্ষাৎকারে ভারতে তাঁকে নিয়ে বিতর্ক এবং ভারতীয় ভক্তদের নিয়ে কথা বলেন তিনি। বস্তুত, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে নিয়ে বিরূপ মন্তব্যের কারণে জনতার রোষের মুখে পড়েছিলেন নোবেল। সে বিষয়ে কথা বলতে গিয়ে এদিন তিনি জানান, বিষয়টি দ্রুত সমাধান হয়ে যাবে বলেই আশা করেন তিনি।

ভারতে বিতর্কের জেরে তাঁর নামে মামলা করা হয়েছিল বলেও শোনা গিয়েছিল।এ বিষয়ে নোবেল বলেন, “বিষয়টি সমাধান হয়ে যাবে আশা করছি। কলকাতার হাইকমিশনে যোগাযোগ হয়েছে। শিগগিরই বিষয়টির সমাধান হয়ে যাবে। আমার নামে ত্রিপুরায় একটি এজাহার হয়েছে, রাষ্ট্রীয় কোনো মামলা নয়। অনেকে বলেন আমার নামে নাকি ওয়ারেন্ট হয়েছে। ভারতে আমার ভিসাও বন্ধ করা হয়েছে। এ নিয়ে আমি কিন্তু কিছুই জানি না। এজাহার ছাড়া বাকি খবরগুলো ভুয়া।”

এরপরই ভারতীয় ভক্তদের মাঝে তাঁর জনপ্রিয়তা নিয়ে প্রশ্ন করা হয় নোবেলকে। ওই বিতর্কের পর ভারতে তাঁর জনপ্রিয়তা কমে গিয়েছে, স্বীকার করে নেন তিনি। বলেন, “ওই ঘটনার পর ভারতের অনেক শ্রোতা আমার ওপর নাখোশ হয়েছেন। তাঁদের আগের নোবেল হিসেবেই আমি আবার তাঁদের মনে জায়গা করে নিতে চাই। সবকিছু সমাধান করে আমি আবার কলকাতায় যাব। তাঁদের সামনে আবার গাইব। আশা করি, তাঁরা আমাকে ক্ষমা করে দেবেন।”

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, চলতি বছরের মে মাসে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় মন্তব্য করে বিতর্কে জড়িয়েছিলেন নোবেল। এর আগে বাংলাদেশের জাতীয় সঙ্গীত নিয়েও বিতর্কিত মন্তব্য করেছিলেন তিনি।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close