রাজনীতি

“নির্লজ্জ যোগী আদিত্যনাথের রাম রাজ্যের প্রশাসন”, হাথরস কান্ড নিয়ে বিস্ফোরক দেবাংশু

মহানগর বার্তা ওয়েবডেস্কঃ উত্তরপ্রদেশের হাথরস গণধর্ষণকাণ্ডে যোগী আদিত্যনাথ সরকার ও বিজেপি দলকে নিশানা করে সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজের বক্তব্য জানালেন তৃণমূলের তরুণ নেতা দেবাংশু ভট্টাচার্য। হাথরস কান্ডে যোগী প্রশাসনের তীব্র নিন্দা করে এদিন একটি ভিডিও আপলোড করে দেবাংশু। চাঁচাছোলা ভাষায় তিনি বলেছেন ,উত্তরপ্রদেশের দুষ্কৃতীরা, বিজেপির কর্মীরা নারীদের ধর্ষণ করে, মেরুদন্ড ভেঙ্গে জ্বিব দুই টুকরো করে দিয়ে উল্লাসে হোলি খেলে ! আসলে এই বীভৎসতা সমাজের সমস্ত স্তরের, সমস্ত শ্রেণীর মানুষের মনে, অন্তরের কোণে কোণে নাড়া দিয়ে গিয়েছে। মানুষ যে এরকম পৈশাচিক আচরণ করতে পারে মানুষের সঙ্গে, তা যে এতটা নারকীয় হতে পারে তা বোধ হয় আমরা কেউই কোনদিন অতীতে কল্পনা করতে পারিনি। আর ধাক্কাটা আমরা এখানেই খাচ্ছি। কারন যা কোনদিনো কল্পনা করতে পারিনি তাই আজ বাস্তব!

উত্তরপ্রদেশে ওরা আগে দোল খেলে, তারপরে ন্যাড়া পোড়া!

Posted by Debangshu Bhattacharya on Thursday, October 1, 2020

 

এই প্রসঙ্গে দেবাংশু নির্যাতিতার পরিবারের ওপর প্রশাসনের প্রবল চাপ ও মুচলেকা লিখিয়ে নেওয়ার কুৎসিত কৌশলের তীব্র সমালোচনা করেছেন। গতকাল রাত্রে যে তরুনীর দেহ পরিবারের হাতে না দিয়ে বাড়ি থেকে মাত্র কয়েক শো মিটার দূরে জোর করে পুড়িয়ে দিলো উত্তর প্রদেশের পুলিশ, সেই পুলিশ-প্রশাসন সামান্যতম সহানুভূতির ধার না ধরে নির্যাতিতার বাবাকে দিয়ে মুচলেকা আদায় করে নিল বলে চারিদিকে তীব্র অভিযোগের ধ্বনি শোনা যাচ্ছে। এই প্রসঙ্গে দেবাংশুর দাবি, চাপের মুখে নির্যাতিতা তরুণীর বাবা মুচলেকা দিতে বাধ্য হয়েছেন প্রশাসনের ভূমিকায় তারা সন্তুষ্ট বলে। এর চেয়ে নিষ্ঠুর পরিহাস বোধহয় আর কিছুই হতে পারে না! ঠিক এখানেই প্রশ্ন যে বিজেপি শাসিত উত্তরপ্রদেশ প্রশাসন কী যাবতীয় শিষ্টাচার ও মানবিকতার সীমা লঙ্ঘন করে ফেলেছে? তাঁরা কাদের আড়াল করতে চাইছে? আসলে কি উন্নাও গণধর্ষণ কাণ্ডের মূল অভিযুক্ত বিজেপি বিধায়ক কুলদীপ সেঙ্গারের মতো মানুষরাই হলেন বিজেপির সম্পদ? আর ভিডিওতে দেবাংশু তীব্র শ্লেষের সঙ্গে এই প্রশ্ন ছুঁড়ে দিয়েছেন এবং এই প্রশ্নটা স্বাভাবিকই উঠছে কারণ যেভাবে বিজেপির নেতাকর্মীরা সারা দেশ জুড়ে একের পর এক নারী নির্যাতন, শ্লীলতাহানি ও ধর্ষণের ঘটনার সঙ্গে জড়িয়ে পড়ছেন। তাতে কোথাও গিয়ে প্রশ্ন ওঠে বিজেপি ও ব্যভিচার কি এক‌ই মুদ্রার দুই পিঠ ?

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close