দেশরাজনীতি

৪৭বার কুপিয়ে খুন, রাজনৈতিক হিংসার বলি শিবসেনার তরুণ নেতা মারাতকার

মহানগর বার্তা ওয়েবডেস্ক: পুনেতে রাজনৈতিক হিংসা এবং পুরোনো শত্রুতার বলি হলেন এক তরুণ নেতা।শিবসেনার এক তরুণ নেতাকে বৃহস্পতিবার মধ্য রাতে নিজের বাড়ির কাছেই নৃশংস ভাবে কুপিয়ে খুন করল দুষ্কৃতীরা। জানা গেছে, ছত্রিশ বছর বয়সী দীপক মারাতকার ওই নেতা পুনের শিবসেনা দলের সহকারী প্রধান। এদিন পুনের বুধবার পেঠ নামক এলাকায় নিজের বাড়ির সামনেই ছ-জন দুষ্কৃতী মিলে তাঁকে খুন করে বলে সূত্রের খবর।

এই দীপক মারাতকার ছিলেন শিবসেনার প্রাক্তন কর্মী বিজয় মারাতকারের ছেলে। বিজয় মারাতকার গত ২১শে জুলাই করোনা ভাইরাসের প্রকোপে মারা যান।

পুলিশের তরফ থেকে জানা গেছে, দীপকের দেহের নানা জায়গায় ধারালো অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন ছিল। হাতে বুকে, পিঠে , সারা শরীরে মোট ৪৭টি ক্ষতের চিহ্ন পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। ফরাসখানা পুলিশ এই ঘটনায় শুক্রবার সন্ধ্যাবেলা একজন মহিলা সমেত মোট তিনজনকে গ্রেফতার করেছে। পুরনো শত্রুতার বশে মারাতকারকে কুপিয়ে খুন করার অভিযোগে তাঁদের গ্রেফতার করা হয়েছে।

জানা গেছে দীপকের বাবা বিজয় মারাতকারের সঙ্গে ওই মহিলার ভোট এবং সম্পত্তি বিষয়ে অনেকদিনের পুরনো শত্রুতা ছিল। সিনিয়র তদন্তকারী অফিসার জগন্নাথ কালাকসার জানিয়েছেন ধৃতদের নাম অশ্বিনী কামব্লে, মহেন্দ্র সারাফ এবং নিরঞ্জন মহানকলে, তিনজনেই বুধবার পেঠের বাসিন্দা।

জানা যায়, ২০১৭ সালে অশ্বিনী কামব্লে মারাতকারের বিপক্ষে নির্বাচনে অংশ নিয়েছিলেন। দুজনেই অবশ্য পরাজিত হয়েছিলেন। খাস পুনেতে এই ধরনের নৃশংস হত্যাকাণ্ড নিঃসন্দেহে আতঙ্কের সৃষ্টি করেছে এলাকার বাসিন্দাদের মধ্যে। আঞ্চলিক রাজনীতিতেও সৃষ্টি হয়েছে অস্বস্তি। দোষীদের উপযুক্ত শাস্তির দাবি জানিয়েছেন স্থানীয় রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close