আম আদমি

ঘুমিয়েই বাজিমাত! ঘুমকাতুরে প্রতিযোগীতায় ৫ লক্ষ টাকা জিতলেন শ্রীরামপুরের ত্রিপর্ণা

মহানগর বার্তা: অলস বলে বাঙালির দুর্নাম আছে। সে নাকি মাথা খাটায় আর ঘুমায়(Sleep)। অন্তত মুম্বাই, চেন্নাইয়ের আদি বাসিন্দাদের ধারণা তাই। তবে এই বদনাম‌ই সেরার শিরোপা এনে দিল বাঙালিকে। স্রেফ ঘুমিয়েই ৫ লাখ টাকা জিতে নিলেন শ্রীরামপুরের ত্রিপর্ণা চক্রবর্তী! তিনিই এখন দেশের সেরা ‘ঘুমকাতুরে’।

ব্যাপারটা ঠিক কী? 

একটি বিখ্যাত ম্যাট্রেস সংস্থা বছরখানেক আগে কে সেরা ঘুমকাতুরে তা নিয়ে একটি প্রতিযোগিতা নিয়ে আসে। সেখানে সারা দেশ থেকে প্রায় ৬ লক্ষ আবেদন জমা পড়েছিল। ত্রিপর্ণাও ছিলেন তাঁদের মধ্যে একজন। তিনি তখন কলেজে পড়তেন।

কিন্তু এই বিপুল আবেদনকারীর মধ্যে থেকে সেরা ঘুমকাতুরে বেছে নেওয়াটা কী মুখের কথা। তাই ঘুম(sleep) নিয়ে নানান প্রশ্ন করে ভারতের সেরা ১৫ ঘুমপ্রিয় মানুষ বেছে নেওয়া হয়। তারমধ্যে ছিলেন শ্রীরামপুরের ত্রিপর্ণাও। কলকাতার আর‌ও একজন এই তালিকায় জায়গা পান।

এই ১৫ জনকে ওই ম্যাট্রেস তৈরি সংস্থা একটি করে আরামদায়ক ম্যাট্রেস উপহার দেয়। সেইসঙ্গে তাতে লাগিয়ে দেওয়া হয় ‘স্লিপ ট্র্যাকার’। যাতে প্রতিযোগীরা কেমন ঘুমাচ্ছে(sleep) তা প্রতিমুহূর্তে ট্র্যাক করা যায়। সেই সঙ্গে প্রতিযোগিতার শর্ত হিসেবে দিনে ৯ ঘন্ট ঘুমাতে বলা হয়।

আরও পড়ুন:দিদির পাশে দাদা, দুর্গাপুজোর অনুষ্ঠানে মমতার পাশে সৌরভ দর্শন

১০০ দিনের এই পর্ব চলার পর ভালো ঘুমানো(sleep) ৪ জনকে ফাইনাল রাউন্ডের জন্য নির্বাচিত করা হয়। এরপর ত্রিপর্ণা সহ ফাইনাল রাউন্ডের বাকি প্রতিযোগীদের বাড়ি গিয়ে সামনে থেকে বিচারকরা ঘুম পর্যবেক্ষণ করেন। সেই ফলের ভিত্তিতেই সেরা হন এই বঙ্গ কন্যা। পুরস্কার স্বরূপ পান ৫ লক্ষ টাকার চেক।

আরও পড়ুন:প্ৰথম ভারতীয় হিসাবে রেকর্ড গড়লেন ‘সোনার ছেলে’, ডায়মন্ড লিগ মিট খেতাব জিতলেন নীরজ

ত্রিপর্ণা এখন কলেজ পাশ করে চাকরি করছেন। সেরা ঘুমকাতুরে হয়ে বেশ খুশি তিনি। জানিয়েছেন মজা করেই এই প্রতিযোগিতায় নাম দিয়েছিলেন, ভাবেননি সেরা হবেন। তবে এখন এই সাফল্যের পর তিনি আনন্দিত।

সবার খবর সঠিক খবর পড়তে চোখ রাখুন মহানগর বার্তায়

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
নিজের লেখা নিজে লিখুন
Close
Close