দেশফিচারবিনোদনসাক্ষাৎকারসিনেমা

অভাবের তাড়নায় পপকর্ন বিক্রি নাবালকের, অনলাইন ক্লাসের জন্য স্মার্টফোন কিনে দিলেন সোনু সুদ

মহানগর বার্তা ওয়েবডেস্ক: লকডাউনে পরিযায়ী শ্রমিক, জনসাধারণের দুঃখ দুর্দশা নিয়ে বই লিখছেন। তাঁকে নিয়ে ইতিমধ্যেই বায়োপিক করার প্রস্তাব এসেছে একাধিক জায়গা থেকে। তবুও ঝাঁ চকচকে স্টার সুলভ জায়গা থেকে দূরে সরে মানব সেবায় নিয়োজিত সোনু সুদ। লকডাউনে সোনু সুদের জনসেবামূলক কাজ তাঁকে ‘ঈশ্বরের দূত’-সম করে তুলেছে জনসাধারণের কাছে। দেশের যে কোনও অসহায় মানুষের পাশেই বিনা স্বার্থে এসে দাঁড়িয়েছেন। নিজের যতটুকু রয়েছে তা দিয়েই সহায়তা করছেন। এবার এক দুঃস্থ শিশুকে অনলাইনে ক্লাস করার জন্য তার হাতে মোবাইল তুলে দিলেন অভিনেতা।

জানা গিয়েছে, লখনউয়ের অবোধ অ্যাকাডেমি ইন্টার কলেজের পড়ুয়া হ্যাপি অনলাইনে ক্লা করতে পারছিল না মোবাইলের অভাবে। সমাজসেবী অঞ্জলি তাজ তার এই সমস্যার কথা অভিনেতা সোনু সুদকে টুইটের মাধ্যমে জানান। অঞ্জলি টুইটে বলেন, ‘‌দয়া করে সাহায্য করুন। হ্যাপি তাঁর বাবাকে সহায়তার জন্য পপকর্ন বিক্রি করেন। আমি যবে থেকে হ্যাপির সঙ্গে দেখা করেছি ওর স্কুলের ফি দিতে সহায়তা করেছি। এখন ওর অনলাইন ক্লাস শুরু হবে, কিন্তু ওর কাছে স্মার্ট ফোন নেই। স্কুলের নাম অবোধ অ্যাকাডেম ইন্টার কলেজ।’‌ সোনু সুদ তাঁর সেই টুইটের প্রত্তুতরে বলেন, ‘‌হ্যাই যদি আমায় পপকর্ন খাওয়ায় তবেই তাকে ফোন দেওয়া হবে। তার পুরো বিবরণ পাঠান।’‌ এই টুইটের ১০ ঘণ্টার মধ্যেই হ্যাপির হাতে মোবাইল চলে আসে।

অঞ্জলি তাঁর টুইটে সোনুকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন যে তিনি তাঁর প্রতিশ্রুতি ১০ ঘণ্টার মধ্যে পূরণ করেছেন এবং তাঁদের সুযোগ দেওয়া হোক সোনুকে পপকর্ন খাওয়ানোর। সোনু কবে লখনউ আসবেন তাও জিজ্ঞাসা করেছেন অঞ্জলি। সোনু সেই উত্তরে বলেন, ‘‌আরে বা!‌ হিরো লাগছে হ্যাপিকে। পপকর্ন খেতে শীঘ্রই আসছি লখনউতে।’‌

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
নিজের লেখা নিজে লিখুন
Close
Close