মহানগর

চিকিৎসায় সাড়া দিচ্ছেন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়, অবস্থা সঙ্কটজনকের মধ্যেও স্থিতিশীল এখন

মহানগরবার্তা ওয়েবডেস্কঃ খুব ভালো নেই বাঙালির ফেলুদা। তবে কোনির ক্ষিদ্দার মতোই তিনি লড়াই ছাড়েননি। শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী খুব সামান্য হলেও শারীরিক অবস্থার উন্নতি ঘটেছে তার। যদিও হাসপাতাল সূত্রে খবর এখনো “সংকটজনক” প্রবীণ অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়। তবে তার শারীরিক অবস্থা কিছুটা “স্থিতিশীল”।

গতকাল অর্থাৎ মঙ্গলবার সন্ধ্যার পর সৌমিত্র বাবুর বাই প্যাপ সাপোর্ট খুলে দেওয়া হয়। বাই প্যাপ সাপোর্ট হলো ননইন্টেনসিভ ভেন্টিলেশন সাপোর্ট সিস্টেম। অর্থাৎ প্রবল শ্বাসকষ্ট থাকলে বা ফুসফুসের চাপ কমানোর জন্য অতিরিক্ত অক্সিজেন সাপোর্ট দেওয়ার উদ্দেশ্যে এই পদ্ধতি ব্যবহার করা হয়। যদিও এই পদ্ধতি ব্যবহার করার ফলে রোগীর শ্বাস প্রশ্বাস প্রক্রিয়া পুরোপুরি যন্ত্রনির্ভর হয়ে পড়ে না। করোনা মোকাবিলার ক্ষেত্রে চিকিৎসকরা ননইন্টেনসিভ ভেন্টিলেশন সাপোর্ট অনেক ক্ষেত্রেই প্রয়োগ করছেন। তাতে সাফল্যের হার বেশি, কারণ সম্পূর্ণ ভেন্টিলেশন সাপোর্ট অর্থাৎ ইন্টেনসিভ ভেন্টিলেশনে দিলে রোগীর রিকভারির সম্ভাবনা অনেকক্ষেত্রে কমে যায় বলে বিশেষজ্ঞরা মনে করেন। এক্ষেত্রে বাইপাপ সাপোর্ট খুলে দেয়ার অর্থ সৌমিত্র বাবুর শ্বাস প্রশ্বাস প্রক্রিয়ায় আগের থেকে কিছুটা হলেও উন্নতি হয়েছে। সৌমিত্র কন্যা পৌলোমী বসু সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে জানিয়েছেন “আমার বাবার শারীরিক অবস্থা আগের থেকে ১ শতাংশ হলেও উন্নত হয়েছে। পাশে থাকার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ।”

বর্তমানে দক্ষিণ কলকাতার বেলভিউ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়। তার চিকিৎসার জন্য রাজ্য স্বাস্থ্য দপ্তরের ঠিক করে দেওয়া দুজন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক সহ মোট ১৬ জন চিকিৎসককে নিয়ে গঠিত হয়েছে মেডিকেল বোর্ড। চিকিৎসার ব্যাপারটি তারাই তদারকি করছেন। মেডিকেল বোর্ড সূত্রে খবর এই মুহূর্তে করোনাকে নিয়ে ততটা নয়, তার থেকেও বেশি দুশ্চিন্তার হয়ে দাঁড়িয়েছে এই বর্ষীয়ান অভিনেতা বয়স ও কো-মরবিডিটির বিষয়গুলি। জানা গিয়েছে তার পুরানো প্রোস্টেট ক্যান্সার এই পরিস্থিতিতে শরীরের বিভিন্ন অংশে ছড়িয়ে পড়েছে। একইসঙ্গে করোনার প্রভাবে তার স্নায়ুতন্ত্রের ভারসাম্যে ব্যাঘাত ঘটছে, তার ফলে মস্তিষ্কে অস্থিরতা দেখা দিয়েছে। তবে এরই মধ্যে আশার কথা শরীরের জ্বর থাকলেও তা ১০০° ওপরে ওঠেনি গতকাল। তবে তার মূত্রনালীতেও সংক্রমণ ছড়িয়েছে বলে খবর। চিকিৎসকদের বক্তব্য শারীরিক অসুস্থতার কারণেই টানা ঘুমাতে পারছেন না। তারাই জানিয়েছেন ইতিমধ্যেই দুবার প্লাজমা থেরাপি করা হয়েছে সৌমিত্র বাবুর। আপাতত এখন‌ই আর প্লাজমা দেওয়ার পরিকল্পনা নেই। আজ বুধবার আবার এমআরআই ও সুষুম্না রসের পরীক্ষা করা হবে।

রাজ্য প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে প্রশাসনের সর্বোচ্চ স্তর থেকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রতিমুহূর্তের সৌমিত্র বাবুর শারীরিক অবস্থা নিয়ে খোঁজ খবর রাখছেন। তিনি গতকাল সন্ধ্যার পর দক্ষিণ কলকাতার হাসপাতালে গিয়েছিলেন। সেখানে চিকিৎসকদের সঙ্গে তাঁর কথা হয়। এরপরই রাজ্য সরকার বাঙালির আইকন এই অভিনেতার চিকিৎসার যাবতীয় দায়ভার গ্রহণ করেছে। এই পরিস্থিতিতে সর্বস্তরের মানুষ সৌমিত্র বাবুর সুস্থতা কামনায় প্রার্থনা করে চলেছে।

শুধু এই রাজ্য নয়, পড়শী বাংলাদেশ নয়, গোটা পৃথিবী জুড়ে কোটি কোটি সৌমিত্র অনুরাগীরা ছড়িয়ে আছেন। তারা প্রতিমুহূর্তে সোশ্যাল মিডিয়ায় বিভিন্ন পোষ্টের মাধ্যমে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের আরোগ্য কামনা করে চলেছেন। তাদের আশা তাদের “ফেলুদা” যেমন কোন‌ও পরিস্থিতিতেই তদন্তের হাল ছাড়ত না, ঠিক লেগে থাকত। তেমনি এবারেও তিনি ঠিক সুস্থ হয়ে হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফিরে আসবেন। এই মুহূর্তে তারা হাসপাতালের বিছানায় শুয়ে থাকা সৌমিত্র বাবুর মধ্যে কোনির “ক্ষিদ্দা” সুলভ ফাইটিং স্পিরিট দেখতে চাইছেন। কবি শ্রীজাত বন্দ্যোপাধ্যায় গতকাল ফেসবুকে পোস্ট করে আশা প্রকাশ করেছেন করোনা ঠিক হয়ে যাবে। সৌমিত্রর সঙ্গে আবার তাদের আড্ডা জমে উঠবে। অভিনেত্রী স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায় টুইটারে লিখেছেন “সৌমিত্র জেঠু ভালো হয়ে ওঠো।” অভিনেত্রী মিমি চক্রবর্তী সৌমিত্র বাবুর সুস্থতা কামনায় তার আরাধ্য প্রভু জগন্নাথের কাছে প্রার্থনা করেছেন। পরমব্রত চট্টোপাধ্যায় সৌমিত্র বাবুর সুস্থতা কামনা করে একটি কবিতা শেয়ার করেছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। তবে এই পরিস্থিতিতেও এক অপ্রীতিকর মন্তব্য দেখা গিয়েছে ফেসবুকের একটি পোস্টে। সৌমিত্র বাবুর সুস্থতা কামনায় সোশ্যাল মিডিয়ায় এক নাট্যকর্মীর শেয়ার করা পোস্টে পার্থ গোস্বামী নামে “সোনারপুর উদ্দালক” নাট্যদলের পরিচালক মন্তব্য করেছেন “এবার আপনি অবসর নিন”। তার এই কুরুচিকর মন্তব্যের পর এই নাট্য কর্মীদের মধ্যে প্রতিবাদের ঝড় ওঠে। নাট্যকর্মী ও চলচ্চিত্র অভিনেতা বিমল চক্রবর্তী ওই পোস্টেই এই মন্তব্যের প্রতিবাদ করে ওই নাট্য পরিচালকের মানসিক সুস্থতা কামনা করেছেন। তবে বাঙালি আশা রাখে সব লড়াই, প্রতিকূলতাকে পেরিয়ে তাদের অহংকার এর সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় ঠিক সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে আসবেন।

বুধবার সকালের মেডিক্যাল বুলেটিনে থেকে জানা গিয়েছে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের শারীরিক অবস্থা সঙ্কটজনক হলেও স্থিতিশীল। চিকিৎসায় সাড়া দিচ্ছেন এই বর্ষীয়ান অভিনেতা। রাত্রিতে ভাল ঘুম হয়েছে। শরীরে সোডিয়াম ও পটাশিয়ামের পরিমাণ সঠিক মাত্রায় আছে। আজ তার আবার করোনা পরীক্ষা করা হবে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close