দেশ

অঙ্কে নম্বর কম দিয়েছে, মাস্টারমশাইকে স্কুলের মধ্যেই গাছে বেঁধে পেটাল ছাত্ররা, ভাইরাল ভিডিও

মহানগর বার্তা ডেস্কঃ পরীক্ষায় কম নম্বর দেওয়া হয়েছে অঙ্কে। সেই ক্ষোভে অঙ্ক শিক্ষককে গাছে বেঁধে পেটানোর অভিযোগ উঠলো নবম শ্রেণীর ছাত্রদের(Students) বিরুদ্ধে। ঝাড়খন্ডের দুমকা জেলার গোপীকান্দার থানার তফসিলি জাতি আবাসিক স্কুলের ঘটনা।

ওই স্কুলের নবম শ্রেণীর এগারো পড়ুয়াকে অঙ্কে ‘ডবল ডি’ গ্রেড দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। যা কার্যত ফেল করার সমান। এই ফলপ্রকাশের পরেই উত্তেজনা ছড়ায় স্কুলটিতে। যে এগারো পড়ুয়া(Students) কম নম্বর পেয়েছেন, তারা অঙ্কের শিক্ষক ও এক কেরানিকে ঘেরাও করেন বলে অভিযোগ। তাঁদের গাছে বেঁধে মারধরের অভিযোগও উঠেছে।

পুলিশ সূত্রে খবর, ওই শিক্ষকের নাম সুমন কুমার। আর কেরানি সোনেরাম চৌরে। পুলিশ জানিয়েছে, “এই ঘটনায় কোনো এফআইআর দায়ের হয়নি। স্কুল কর্তৃপক্ষ লিখিত কোনো অভিযোগ দেননি। বিষয়টি জানতে পেরে স্কুল কর্তৃপক্ষকে লিখিত অভিযোগ দিতে বলেছি। কিন্তু তাতেও তাঁরা রাজি হননি। স্কুল কর্তৃপক্ষের দাবি, তাঁরা যদি পুলিশে অভিযোগ করেন, তা হলে ছাত্ররা(Students) আরও বিগড়ে যেতে পারে।” পিটিআই’কে জানিয়েছেন গোপীকান্দার থানার ভারপ্রাপ্ত আধিকারিক নিত্যানন্দ ভক্তা।

ওই আবাসিক স্কুলে ২০০ জন পড়ুয়া(Students) আছে বলে জানান গোপীকান্দারের বিডিও অনন্ত ঝা। তিনি ওই স্কুলটি পরিদর্শনে যান। তারপর তিনি বলেন, “আক্রান্ত শিক্ষক স্কুলের প্রধান শিক্ষক ছিলেন। কিন্তু কোনও কারণে তাঁকে ওই পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়। স্কুলের শৃঙ্খলা বজায় রাখতে নবম এবং দশম শ্রেণীকে দু’দিনের জন্য বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।”

পড়ুয়াদের অভিযোগ তাঁদের ইচ্ছাকৃতভাবে ফেল করানো হয়েছে। অঙ্ক শিক্ষকের সঙ্গে ওই কেরাণীও সমান দায়ী। সে জেএসি’র ওয়েবসাইটে ওই ফল আপলোড করেছে।

আরও পড়ুন: সাফল্যের দৌড় পাঁশকুড়া টু নয়ডা! টুইন টাওয়ার ধ্বংসের গবেষক দলে বাংলার যুবক মৃণাল ভৌমিক

যদিও বিডিও অনন্ত ঝা বলেন, “প্র্যাকটিক্যাল পরীক্ষার নম্বর এবং কোন দিন সেই ফল ওয়েবসাইটে আপলোড করেছেন তা স্কুল কর্তৃপক্ষ দেখাতে পারেননি। তাই বিষয়টি স্পষ্ট নয় যে, পড়ুয়ারা থিওরিতে ফেল করেছে, না কি প্র্যাকটিক্যাল পরীক্ষায়। প্রাথমিক ভাবে যেটা জানা গেছে তা হলো, গুজবের বশেই পড়ুয়ারা হামলা চালিয়েছে।”

আরও পড়ুন:রাম সেতুর ঐতিহ্য নষ্ট করেছে অক্ষয়, আইনি নোটিশ সুব্রহ্মনিয়ম স্বামীর

এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসতে নড়েচড়ে বসেছে ঝাড়খন্ড স্কুল শিক্ষা দপ্তরও। বিষয়টি খতিয়ে দেখবে বলে জানিয়েছে তারা।

সবার খবর সঠিক খবর পড়তে চোখ রাখুন মহানগর বার্তায়

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
নিজের লেখা নিজে লিখুন
Close
Close