বিনোদন

শুধু কেন মহিলাদেরই জেরা! মাদককান্ডে NCB’কে কটাক্ষ সুচিত্রা কৃষ্ণমূর্তির

মহানগর বার্তা ওয়েবডেস্ক: বলিউডের ড্রাগ কেলেঙ্কারিতে একের পর এক মহিলা তারকাদের উপর শমন জারি করায় নারকোটিকস কন্ট্রোল ব্যুরো তথা এনসিবির প্রতি ক্ষোভ উগড়ে দিলেন অভিনেত্রী সুচিত্রা কৃষ্ণমূর্তি। তাঁর মতে, যেভাবে এনসিবি শুধুমাত্র অভিনেত্রীদেরকেই তলব করছে, পুরুষ তারকারা বাদ পড়ছেন তাতে তিনি বিস্ময়াহত।

এ বিষয়ে এদিন নিজের টুইটার হ্যান্ডেলে ক্ষোভ প্রকাশ করেন সুচিত্রা। শুধু তাই নয়, আরো একধাপ এগিয়েই মতামত দিয়েছেন একদা শাহরুখ খানের বিপরীতে অভিনয় করা সুচিত্রা। বলিউড ইন্ডাস্ট্রি তথা এনসিবিকে তিনি চুড়ান্ত নারীবিদ্বেষী বলে অভিহিত করতেও কুন্ঠা বোধ করেননি।

রবিবার টুইট করে অভিনেত্রী জানান, এনসিবি যেভাবে একের পর এক হিন্দি চলচ্চিত্র জগতের অভিনেত্রীদের ড্রাগ মামলার তদন্তে ডেকে পাঠাচ্ছে, অভিনেতারা অনায়াসেই ছাড় পেয়ে যাচ্ছেন তা চুপ করে বসে বসে দেখা সত্যিই দুর্ভাগ্যজনক। বস্তুত, ইন্ডাস্ট্রির নারীবিদ্বেষের পরম্পরাকেই এই বৈষম্যের জন্য দায়ী করেছেন সুচিত্রা কৃষ্ণমূর্তি এবং কড়া নিন্দা করেছেন এনসিবির আচরণের। নারীবিদ্বেষী এই বলিউডের নতুন করে পুনর্গঠন প্রয়োজন, এমনটাই মনে করেছেন কৃষ্ণমূর্তি। ইন্ডাস্ট্রির প্রতি তীব্র কটাক্ষ হেনে তিনি এও দেখিয়েছেন কিভাবে “কেয়া মাল হ্যায়” থেকে বলিউডি পরম্পরা “মাল হ্যায় কেয়া”-তে পরিবর্তিত হয়েছে।

বস্তুত, সুশান্ত সিং রাজপুতের রহস্যময় মৃত্যুর পর, তদন্তের জেরে অভিনেতার বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তীর গ্রেফতারির পরেই ড্রাগ মামলায় একের পর এক উঠে আসতে থাকে বলিউড ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির তাবড় তাবড় অভিনেত্রীর নাম। কিন্তু আশ্চর্যজনক ভাবে এই মামলায় এখনও পর্যন্ত মৃত অভিনেতা ছাড়া আর কোনো অভিনেতার নাম উঠে আসে নি। এই বিষয়ে কিছুদিন আগেই বিদ্রূপ শোনা গেছিল যাদবপুর লোকসভা কেন্দ্রের সাংসদ তথা টলিউড অভিনেত্রী মিমি চক্রবর্তীর মুখেও। বলিউডের অভিনেতারা সকলে কি ধোয়া তুলসী পাতা? প্রশ্ন তুলেছিলেন মিমিও।এদিন সুচিত্রা কৃষ্ণমূর্তির গলাতেও সেই একই সুর শোনা গেল। তাহলে কি পুরুষের মাদকসেবন পক্ষপাতের চোখে দেখে বলিউড সমাজ? প্রশ্ন উঠছে তা নিয়েও।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
নিজের লেখা নিজে লিখুন
Close
Close