বিনোদন

‘ভাই সুশান্ত বেঁচে নেই, মা’ও চলে গেছে’, নবরাত্রিতে আবেগঘন পোস্ট বোন শ্বেতার

মহানগরবার্তা ওয়েবডেস্ক: সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর থেকে ভাইয়ের স্মৃতি যেন কিছুতেই পিছু ছাড়ছে না শ্বেতার। এবার শুধু ভাই নয়, নিজের মায়ের স্মৃতি রোমন্থন করে আবেগঘন পোস্ট করলেন সুশান্ত সিং রাজপুতের দিদি শ্বেতা সিং কীর্তি। মায়ের একটি পুরোনো ছবি এদিন তিনি শেয়ার করেন সোশ্যাল মিডিয়ায়, যা দেখে আবেগে ভেসেছেন নেটিজেনরাও।

 

নিজের ইন্সটাগ্রামে এদিন শ্বেতা তাঁদের মায়ের একটি পুরোনো বিরল ছবি শেয়ার করেছেন। আসন্ন নবরাত্রির উৎসব উপলক্ষ্যে নিজের মায়ের স্মৃতি রোমন্থন করেছেন তিনি। আগামী দিনের সমস্ত কঠিন সময়কে পেরিয়ে যাওয়ার জন্য হারানো মায়ের কাছ থেকে শক্তি প্রার্থনাও করেছেন। প্রিয় ভাইয়ের মৃত্যু শোক ভোলার জন্যেও সহায় চেয়েছেন মায়ের কাছেই।

https://www.instagram.com/p/CGaPqC0FT1Y/?igshid=16a5h30a8jaq1

সদ্য প্রয়াত অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের দিদি শ্বেতা সোশ্যাল মিডিয়ায় বরাবরই বেশ সক্রিয়। এদিন মায়ের ছবি শেয়ার করে তিনি লিখেছেন, “মা, নবরাত্রির এই উৎসবে আমি তোমার কাছ থেকে শক্তি আর জ্ঞান প্রার্থনা করছি। তুমি যেভাবে আমাদের বড় করে তুলেছো,তাতে আমি গর্বিত। আগে নিজের মা কে সম্মান জানিয়েই আমাদের দুর্গাপুজো শুরু করা যাক। আশা করি এই নবরাত্রির উৎসবে সবার জীবন স্বর্গীয় শক্তিতে ভরে উঠবে।”

 

বস্তুত, সুশান্ত সিং রাজপুত ও তাঁর দিদি শ্বেতা সিং কীর্তির মা তাঁদের ছোটোবেলাতেই মারা গিয়েছিলেন। অভিনেতা সুশান্ত তাঁর মাকে অত্যন্ত ভালোবাসতেন এবং স্বভাবতই মায়ের মৃত্যুর পর অত্যন্ত ভেঙে পড়েছিলেন। জানা যায়, সুশান্ত সিং রাজপুতের চিকিৎসক সুশান ওয়াকার বলেছিলেন মায়ের মৃত্যু গভীর রেখাপাত করেছিল সুশান্তের জীবনে। তিনি একটি সংবাদপত্রে বলেছেন, “সুশান্ত খুবই লাজুক ছিলেন। ১৫-১৬ বছর বয়সে তাঁর মা প্যানিক অ্যাটাকে আক্রান্ত হয়ে মারা যান। সুশান্ত মায়ের সঙ্গেই সবচেয়ে বড় ঘনিষ্ঠ ছিলেন। মায়ের মৃত্যুর পর তিনি তাঁর দিদির সঙ্গে ঘনিষ্ঠ হন। কিন্তু বাবার সঙ্গে তেমন যোগ ছিল না বলেই আমি শুনেছি।”

 

প্রসঙ্গত, মৃত্যুর আগে সুশান্ত সিং রাজপুতের শেষ সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টটিও ছিল তাঁদের মাকে নিয়েই। ১৪ই জুন মৃত্যুর আগে শেষ তিনি ৩জুন সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছিলেন, সেখানে মায়ের একটি সাদা কালো ছবি তিনি শেয়ার করেছিলেন। এরপর ১৪ তারিখ মুম্বাইয়ের ফ্ল্যাটে অভিনেতার ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার করা হয়।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close