রাজনীতি

নতুন পুরস্কার দিল বিজেপি, পদ হারিয়ে ক্ষোভে ফেটে পড়লেন রাহুল সিনহা

মহানগর বার্তা ওয়েবডেস্কঃ ২০২১ বিধানসভা নির্বাচনের আগে বড়সড় বদল এল বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্বে। রাজ্যে দলের জাতীয় সম্পাদক ছিলেন রাহুল সিনহা। তাঁকে সেই পদ থেকে সরিয়ে তার স্থানে নিয়োগ করা হল অনুপম হাজরাকে।এছাড়া দলের জাতীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য মুকুল রায়কে সর্বভারতীয় সহসভাপতির দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। ক্ষমতার এই রদবদল নিয়ে ক্ষোভ চেপে রাখেননি রাহুল সিনহা। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভিডিও পোস্ট করে নিজের ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন তিনি। এদিন তিনি বলেন, “চল্লিশ বছর বিজেপির সেবা ও দলের একজন সৈনিক হিসেবে কাজ করে এসেছি। জন্মলগ্ন থেকে বিজেপির সেবা করবার পুরস্কার এটাই যে— তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা আসছেন, তাই আমাকে সরতে হবে। এর চেয়ে বড় দুর্ভাগ্যের কিছু আর হতে পারে না। পার্টি যে পুরস্কার দিল সেই পুরস্কারের পক্ষে বিপক্ষে কিছু বলতে চাই না।”

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, মুকুল রায় কিংবা অনুপম হাজরা, দুজনেই বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন তৃণমূল থেকে সরে গিয়ে। ২০১৭ সালে তৃণমূল ছেড়ে মুকুল যোগ দেন বিজেপিতে। সেই থেকে কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন তিনি। অনুপম হাজরাও আগে তৃণমূলের লোকসভা সদস্য ছিলেন। পরে তিনি বিজেপির হয়ে যাদবপুর লোকসভা কেন্দ্র থেকে ভোটে দাঁড়িয়েছিলেন। তৃণমূলের এই দুই প্রাক্তন নেতাকে বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্বে স্থানলাভ নিঃসন্দেহে তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

এদিকে ক্ষুব্ধ রাহুল সিনহার মন্তব্য তাঁর এর পরবর্তী পদক্ষেপের বিষয়েও কিছুটা ইঙ্গিত দিয়েছে। তিনি আগামী কিছুদিনের মধ্যে এ নিয়ে সিদ্ধান্ত নেবার কথা বলেছেন, “আমি যা বলার দশ-বারো দিনের মধ্যে বলব এবং আমার ভবিষ্যৎ কর্মপন্থা ঠিক করব।”

এদিকে দলের সিদ্ধান্ত নিয়ে মুকুল, অনুপম দুজনেই সন্তোষ প্রকাশ করেছেন। নতুন নেতৃত্বকে স্বাগত জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও। আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনের প্রাক্কালে রাজ্য বিজেপির এই নেতৃত্বের রদবদল অবশ্যই তাৎপর্যপূর্ণ।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
নিজের লেখা নিজে লিখুন
Close
Close