দেশ

সন্তান ধারণের হার সবচেয়ে কম মুসলিমদের মধ্যে, রিপোর্ট পেশ কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের

মহানগর বার্তা ওয়েবডেস্কঃ কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের রিপোর্ট বলছে অভিযোগ যা ছিল তা সত্যি নয়। গত পাঁচ বছরে সন্তানধারণের হার সবচেয়ে বেশি কমেছে মুসলিমদের মধ্যে। জাতীয় পরিবার স্বাস্থ্য সমীক্ষা – ৫ (এনএফএইচএস)-এর সদ্য প্রকাশিত রিপোর্ট বলছে পাঁচ বছর আগে (২০১৫- ‘১৬-এনএফএইচএস-৪) সন্তান ধারণের বয়সে থাকা মুসলিম মহিলাদের গড় সন্তান সংখ্যা ছিল ২.৬। সদ্য সমাপ্ত (২০১৯-২০২১এনএফএইচএস-৫) সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে সেই হার কমে হয়েছে ২.৩। ১৯৯২-৯৩ সালে হওয়া সমীক্ষার সঙ্গে তুলনা করলে দেখা যাচ্ছে মুসলিম মহিলাদের সন্তানধারণের সংখ্যার গড় অর্ধেকে নেমে এসেছে। ১৯৯২-৯৩ সালে হওয়া প্রথম সমীক্ষায় এই সংখ্যা ছিল ৪.৪ জন।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের মতে সব ধর্মের মধ্যে একমাত্র মুসলিমদের মধ্যেই এত মাত্রায় জন্মহার হ্রাস পেয়েছে। এই তথ্য জনসংখ্যার বৃদ্ধি নিয়ে মুসলিমদের প্রতি সাম্প্রতিক অভিযোগগুলো যে ভুল তা স্পষ্ট করে দেয়। বিশেষজ্ঞরা এই পরিসংখ্যান তুলে ধরে বলছেন, বিগত কয়েক দশক যাবৎ এই ব্যাপারে উল্টো প্রচার হয়ে আসছিল। ধর্মীয় বিদ্বেষ ছড়ানোর উদ্দেশে লাগাতার মুসলিম জনসংখ্যার বিস্ফোরণের কথা বলা হচ্ছিল। মাস কয়েক যাবৎ হিন্দুত্ববাদী সংগঠনগুলি প্রচার শুরু করেছে, অচিরেই মুসলিমরা জনসংখ্যায় হিন্দুদের ছাপিয়ে যাবে। তারা হিন্দু দম্পতিদের বেশি করে সন্তান নেওয়ার জন্য প্রচার শুরু করেছে।

কিন্তু বর্তমানে পরিস্থিতি যে অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে এই রিপোর্ট তা প্রমাণ করে দেয়। নরেন্দ্র মোদী সরকারের স্বাস্থ্যমন্ত্রক প্রকাশিত পরিসংখ্যান বলছে, মুসলিমরাও সমানতালে জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণের কর্মসূচির সুবিধা গ্রহণ করছে।

 

 

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
নিজের লেখা নিজে লিখুন
Close
Close