রাজনীতিরাজ্য
Trending

‘ওরা বাইরে থেকে এসেছেন’, রাজীব-সৌমিত্রর বিদ্রোহ কে পাত্তা দিচ্ছে না বিজেপির হাইকমান্ড

মহানগর বার্তা ওয়েবডেস্ক: ৭ই জুলাই বিজেপির যুব মোর্চার পদ থেকে ইস্তফা দেওয়ার কথা জানান সৌমিত্র খাঁ। পরে অবশ্য এই সিদ্ধান্ত থেকে সরে দাঁড়ান সৌমিত্র। আবার গতকালই রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় কেন্দ্রকে তোপ দাগেন, ‘২১৩ আসন নিয়ে জিতে আসা মুখ্যমন্ত্রীর সমালোচনা না করে পেট্রোল ও ডিজেলের দাম কমানোর জন্য উদ্যোগ নেওয়া উচিত’।

গত ৭ই জুলাই সৌমিত্র খাঁ ও রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের এহেন উল্টোপুরাণের পর, বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘এসব তৃণমূলের দলীয় সংস্কৃতি। বিজেপিতে এসব চলেনা।ইচ্ছা অনিচ্ছার সঙ্গে মিলছেনা তাই এসব বলছেন।’ ফলে স্পষ্ট যে রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের এহেন বক্তব্যকে বাতিলের তালিকাতেই রাখছেন দিলীপ ঘোষ। এরপর সৌমিত্র খাঁ যে পদত্যাগ করবেন বলেছিলেন সেই বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে দিলীপ বাবু বলেন, ” সব দলেই একটা প্রতিযোগিতা থাকে। পার্টি কাউকে বেশি গুরুত্ব দেয় ,কাউকে কম। সেগুলো নিয়ে দলে বলার সুযোগ রয়েছে। রাজ্যে না হলে কেন্দ্রীয় নেতারা রয়েছেন। যে পার্টি থেকে এরা এসেছেন, সেখানে এরকমই হয়। নিজে নিজেই এক একটা পার্টি। এখানে একটাই পার্টি। নিজের আশা আকাঙ্খা না মিটলেই এসব বলছেন। ওঁদের কোনো ধৈর্য নেই।”

প্রসঙ্গত, গত ৭ই জুলাই ফেসবুকে পদত্যাগের পোষ্টের পর লাইভে এসে সৌমিত্র খাঁ, শুভেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধে নানান মন্তব্য করেন। কিন্তু এপ্রসঙ্গে শুভেন্দু অধিকারী জানান, ‘সৌমিত্র খাঁ আমার ভাই। অনেক লাইভ করছেন। আমি কিছু বলব না। ও আমার সহকর্মী। আমি ওর শ্রীবৃদ্ধি চাই। এগুলো সিরিয়াসলি নিচ্ছি না। অনেকে চাপা, অনেকে প্রকাশ্যে বলে দেয়। দিল্লি গেলে আমি ওর বাড়িতে খাওয়াদাওয়া করি।’ অতএব বোঝাই যায় সব বিতর্ককে কার্যত ধামাচাপা দিতে চাইছেন শুভেন্দু অধিকারী।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
নিজের লেখা নিজে লিখুন
Close
Close