রাজ্যরাজনীতি

“কিছুদিন খাওয়া বন্ধ রাখলে পরে আরো খেতে পারবেন”, কাটমানি নিয়ে দলকে বার্তা তৃণমূল নেতার

মহানগরবার্তা ওয়েবডেস্ক: দলীয় সভায় বিতর্কিত মন্তব্য করে দলের অস্বস্তি বাড়ালেন তৃণমূল নেতা উদয়ন গুহ। কোচবিহার জেলার দিনহাটার তৃণমূল বিধায়ক উদয়ন গুহর বক্তব্য তাঁর দলের কর্মীরা অনেক খেয়েছেন, ভবিষ্যতে আরও খাবেন, কিন্তু আপাতত কিছুকাল খাওয়া বন্ধ রাখাই শ্রেয়। তৃণমূল নেতার এহেন মন্তব্য সামনে আসতেই অস্বস্তিতে শাসকদল।

জানা যাচ্ছে, শনিবার কোচবিহারের দিনহাটার নিগমনগর হাইস্কুলের মাঠে তৃণমূলের এক দলীয় কর্মীসভার আয়োজন করা হয়েছিল। সেখানেই যোগ দিয়েছিলেন দিনহাটার বিধায়ক উদয়ন গুহ। সেখানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে কর্মীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, বিজেপি কর্মীরা যদি ভোট লুঠ করতে আসে তাহলে ঝাঁটা হাতে তাদের মোকাবিলা করতে হবে। কিন্তু তার সঙ্গেই সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়ানোর পদ্ধতি বাতলে দেন তিনি। আর সেটা করতে গিয়েই বিতর্কিত মন্তব্যটি করে ফেলেন তৃণমূল নেতা।

বস্তুত, গত বছর লোকসভা নির্বাচনে উত্তর বঙ্গে তৃণমূল কংগ্রেসের অবস্থান খুব একটা সুবিধাজনক ছিল না। শাসকদল ২০১৯ এর লোকসভায় একটিও আসন পায় নি। উত্তরবঙ্গে দলের এই ব্যর্থতার জন্য কর্মীদেরকেই দায়ী করেছেন উদয়ন গুহ। তাঁর দলের কর্মীরা সাধারণ মানুষের মুখের খাবার কেড়ে নিয়েছিল বলে মন্তব্য করেন তিনি। এ বছর যাতে সেই একই ভুল না হয় তারই পরামর্শ দিয়েছেন তিনি। বলেছেন, “গত লোকসভায় আমরা হেরেছিলাম কারণ আমাদের নেতা-কর্মীরা মানুষের খাবার কেড়ে নিয়েছিল। তার জন্য আমিও কিছুটা দায়ী। কিন্তু একুশের বিধানসভায় জিততে গেলে মানুষের খাবার কেড়ে নিলে চলবে না। এখন মানুষকে খাওয়ার সুযোগ দিন। অনেক খেয়েছেন। আবার খাবেন। কিন্তু আগামী ৬ মাস খাওয়া বন্ধ রাখুন।”

এখানেই থামেননি তিনি। তাঁর মতে এখন যদি কর্মীরা নিজেদের সংযত করেন তবে আগামীদিনে আরো খেতে পারবেন তাঁরা। “এখন না খেলে আগামী দিনে খাওয়ার সুযোগ পাবেন। আর এখন খেলে আগামী দিনে মানুষ আর খাওয়ার সুযোগ দেবে না। এবার ভাবুন আপনারা কী করবেন।”

শাসকদলের একজন বিধায়ক হয়ে প্রকাশ্য সভায় এহেন বিতর্কিত মন্তব্য করে দলের অস্বস্তিকেই বাড়িয়েছেন উদয়ন গুহ। আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনের আগে তা জনমনে কি ধরণের প্রভাব ফেলবে তা নিয়েই শুরু হয়েছে রাজনৈতিক চাপানউতর।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close