খবররাজ্য

‘প্রমাণ ছাড়াই যা খুশি করছে’, কুকুরের সাথে সিবিআইয়ের তুলনা টানলেন তৃণমূল বিধায়ক

গোটা রাজ্যজুড়েই চলছে শাসক দল তথা তৃণমূলের একের পর এক মন্ত্রীর কারনামা ফাঁস। এবার বিতর্কে জড়ালেন হাসনের তৃণমূল বিধায়ক অশোক চট্টোপাধ্যায়। সিবিআইয়ের (CBI) সঙ্গে কুকুরের তুলনা টানেন তিনি। সেই নিয়েই তীব্র বিতর্কে হাসনের তৃণমূল বিধায়ক অশোক চট্টোপাধ্যায়। তিনি বলেন, ”প্রমাণ ছাড়াই যা খুশি তাই করছে। যেখানে যেখানে বিজেপি-বিরোধী শক্তি, সেখানে কিছু কুকুর ছেড়ে দিয়েছে।”

বর্তমানে অস্বস্তিতে রয়েছে রাজ্যের শাসক দল। এসএসসি নিয়োগ দুর্নীতি, কয়লা ও গরু পাচারের মতো একের পর এক ঘটনায় নাম জড়িয়েছে তৃণমূলের হেভিওয়েট নেতাদের। তারপরই নড়েচড়ে বসেছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। এসএসসি নিয়োগ দুর্নীতির তদন্তে নেমে রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় ও তাঁর ঘনিষ্ট অর্পিতা মুখোপাধ্যায়কে গ্রেফতার করেছে ইডি। অর্পিতার দুটি ফ্ল্যাটে তল্লাশি চালিয়ে নগদ প্রায় ৫০ কোটি টাকা উদ্ধার করা হয়। এর পাশাপাশি বিপুল সোনার গয়না, বিদেশি মুদ্রা, বেনামী সংস্থা ও সম্পত্তির নথি উদ্ধার করেছে ইডি। তারপরে গরু পাচার মামলায় বীরভূম জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলকে গ্রেফতার করে সিবিআই। এরপরই বর্ধমান সানমার্গ ওয়েলফেয়ার চিটফান্ড কাণ্ডে নাম জড়ায় হালিশহরের তৃণমূল পুরপ্রধান রাজু সাহানির। তাঁকে গ্রেফতার করে সিবিআই। তার বাড়ি থেকে ৮০ লক্ষ টাকা উদ্ধার হয়েছে বলে খবর। কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার তৎপরতায় তাদের ‘কুকুর’ বলে আক্রমণ করলেন তৃণমূল বিধায়ক। তাঁর কথায়,’দিল্লির উপমুখ্যমন্ত্রীর বাড়িতেও সিবিআই দিয়ে তল্লাশি চালানো হয়েছে।’

যদিও চুপ করে থাকেনি বিরোধী দল। বীরভূম বিজেপির জেলা সভাপতি ধ্রুব সাহা পাল্টা কটাক্ষ করে বলেছেন, ”উনি ভয় পেয়ে ভুল বকছেন। যে কোনও দিন ওঁর বাড়িতেও ইডি, সিবিআই আসতে পারে। লোকমুখে শোনা যাচ্ছে, হাসনের বিধায়ক বহু জায়গায় লজ কিনেছেন। নামী-বেনামী প্রতিষ্ঠান তৈরি করেছেন। সেই জন্য ভয় পাচ্ছেন। সেই কারণেই এরূপ বক্তব্য রাখছেন।’ এর আগেও ইডি-সিবিআইকে আক্রমণ করে নানারূপ মন্তব্য করেছেন অনেকে তৃণমুল নেতা। এবার সেই তালিকায় যোগ হলেন হাসনের তৃণমূল বিধায়ক অশোক চট্টোপাধ্যায়।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
নিজের লেখা নিজে লিখুন
Close
Close