খবরদেশ

জ্ঞানবাপী মসজিদ চত্বরে পূজার্চনার দাবি খতিয়ে দেখবে আইন, ঘোষণা বারাণসী জেলা আদালতের

মহানগর বার্তা ডেস্ক : সোমবার বারাণসী(Varanasi) জেলা ও আদালত জ্ঞানব্যাপি মসজিদ নিয়ে করা মুসলিম পক্ষের আবেদন খারিজ করে দিল। আদালতের তরফে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে যে, জ্ঞানব্যাপি মসজিদ কমপ্লেক্স এবং এর আশেপাশের জমিকে চ্যালেঞ্জ করে যে দেওয়ানী মামলা করা হয়েছে তা রক্ষণাবেক্ষণযোগ্য। জেলা জজ এ কে বিশ্বেশ বলেন, মামলার বিস্তারিত শুনানি হবে আগামী ২২ সেপ্টেম্বর। হিন্দু পক্ষের দাবি মেনে শুনানি এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার কথা দিয়েছেন তিনি।

আরও পড়ুন:আমি যখন রেলমন্ত্রী ছিলাম মিডিয়া দেখাতো ট্রেনে শুধু ইঁদুর ঘুরে বেড়াচ্ছে: মমতা

আঞ্জুমান ইন্তেজামিয়া মসজিদ – মসজিদ পরিচালনা কমিটি এবং জ্ঞানব্যাপি মসজিদ প্রাঙ্গণে শ্রিংগার গৌরীর পূজা করার অধিকার চেয়েছিলেন পাঁচ হিন্দু মহিলা। তাই হিন্দু দেবদেবীর পূজোর প্রতিদিনের পুজোর অনুমতি চেয়ে এই আবেদন করা হয়। আঞ্জুমান ইন্তেজামিয়া মসজিদ কমিটি বলে যে জ্ঞানব্যাপি মসজিদটি ওয়াকফ প্রাঙ্গণে নির্মিত হয়েছে। অন্যদিকে হিন্দু পক্ষ বলছে মসজিদটি একটি মন্দিরের জায়গায় নির্মিত হয়েছে। অগ্রাধিকার ভিত্তিতে মামলার রক্ষণাবেক্ষণের সিদ্ধান্ত নিতে জেলা জজ ২০ মে শুনানি শুরু করেন। হিন্দু পক্ষের আইনজীবী মদন মোহন যাদব বলেছিলেন যে মন্দির ভেঙে মসজিদটি তৈরি করা হয়েছিল। সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে জেলা আদালতে মামলাটির শুনানি চলছে।

আরও পড়ুন:’অনুদান নিয়ে যাদের সমস্যা তাঁরা পুজো এলে মার্কসের বই বিক্রি করে’,বামেদের কটাক্ষ কল্যাণের

অন্য দিকে হিন্দুত্ব পক্ষের আইনজীবী বিষ্ণু জৈন এবং হরিশঙ্কর জৈনের দাবি, ১৯৪৭ সালের পরেও শৃঙ্গার গৌরীস্থলে পূজার্চনার প্রমাণ রয়েছে। সেই দাবির প্রমাণ হিসেবে ১২ জন সাক্ষীকেও পেশ করা হয়েছিল আদালতে। পাশাপাশি, মন্দির ধ্বংস করার জন্য মসজিদ কমিটি জ্ঞানভাপি কমপ্লেক্সের জরিপকে চ্যালেঞ্জ করেছিল। সেই মসজিদ চত্বরে ভিডিয়োগ্রাফির সময় ওজুখানার শিবলিঙ্গের অস্তিত্বের প্রমাণ মিলেছে বলেও দাবি করেছিলেন তাঁরা।

সবার খবর সঠিক খবর পড়তে চোখ রাখুন মহানগর বার্তায়

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
নিজের লেখা নিজে লিখুন
Close
Close