বিনোদন

“কোনো কিছুতেই ভেঙে পড়ব না”, রিয়ার জামিনের পর ট্যুইট সুশান্তের দিদি শ্বেতার

মহানগরবার্তা ওয়েবডেস্ক: সুশান্ত সিং রাজপুতের বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তীর জামিন পাওয়ার দিনেই সোশ্যাল মিডিয়ায় আবেগঘন পোস্ট এল অভিনেতার দিদি শ্বেতা সিং-এর। নিজের ট্যুইটার হ্যান্ডেলে তিনি এদিন লিখেছেন, কঠিন সময়ে ভেঙে না পড়ে মনকে শক্ত করলেই একদিন ঠিক লক্ষ্যে পৌঁছনো যায়। যাই হয়ে যাক, ভাইয়ের প্রতি সুবিচার নিশ্চিত করতে তিনি যে কিছুতেই পিছু হঠবেন না, সেই বার্তাও দিয়েছেন শ্বেতা।

এদিকে দীর্ঘ ২৮ দিন জেলে কাটানোর পর অবশেষে বুধবারই জামিন পেয়েছেন অভিনেতার বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তী। মুম্বইয়ের বাইকুল্লা জেল থেকে বেরিয়ে তিনি রওনা হন বাড়ির উদ্দেশ্যে।শর্তসাপেক্ষে মাদক চক্রের সঙ্গে যুক্ত থাকার অপরাধে গ্রেফতার রিয়ার জামিন মঞ্জুর করেছে বম্বে হাইকোর্ট। অবশ্য ব্যক্তিগত এক লক্ষ টাকার বন্ডে তাঁকে মুক্তি দেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। রিয়া চক্রবর্তী মুক্ত হলেও আদালত তাঁর ভাই শৌভিকের জামিনের আবেদন খারিজ করে দিয়েছে আবার। এছাড়া মাদক ব্যবসায়ী বলে অভিযুক্ত আব্দুল বাসিক পারিহারের জামিনের আর্জিও মঞ্জুর হয়নি। তাঁদের গতমাসে এনডিপিএস আইনের বিভিন্ন ধারায় গ্রেফতার করা হয়েছিল।

অভিনেত্রী রিয়া চক্রবর্তীর জামিনের দিনেই রাতে ট্যুইটারে এক আবেগঘন পোস্ট করেন সুশান্ত সিং রাজপুতের দিদি শ্বেতা সিং কীর্তি। কঠিন সময়ে নিজেকে শক্ত রাখতে পারলেই মিলবে সাফল্য, একথাই জানান তিনি। বলেন, “কঠিন সময় থাকে না কিন্তু কঠিন মানুষ থেকে যায়। আমাদের সবার অনেক শক্তি আছে, শুধু তাতে বিশ্বাস করতে হবে।” এছাড়া তিনি আরো জানান, “আমরা কিছুতেই ভেঙে পড়বো না, এটা নিজেরই কাছে নিজের শপথ।” যথারীতি তাঁর এই পোস্ট সাড়া ফেলেছে ট্যুইটার জনতার মাঝে।

প্রসঙ্গত গত ১৪জুন নিজের বান্দ্রার ফ্ল্যাট থেকে অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার করা হয়। তারপরেই এই আকস্মিক মৃত্যু নিয়ে তোলপাড় শুরু হয় দেশ জুড়ে। ঘনীভূত হয় একাধিক রহস্য। অভিনেতার প্রতি সুবিচারের দাবিতে উত্তাল হয় সোশ্যাল মিডিয়া। অবশেষে ঘটনার তদন্তের ভার যায় সিবিআই এর হাতে। এই ঘটনার সঙ্গে বলিউডের মাদক চক্রের যোগ খুঁজে অভিনেতার বান্ধবী রিয়াকে গ্রেফতার করে নারকোটিকস কন্ট্রোল ব্যুরো। প্রায় এক মাস পর তাঁর মুক্তির দিনেই শ্বেতার এই পোস্ট নিঃসন্দেহে তাৎপর্যপূর্ণ।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close