ভাইরালদেশ

আফগানিস্তানের প্রধানমন্ত্রীকে স্বাধীনতা দিবসের শুভেচ্ছা মোদির! ‘আগে NEET,JEE পরীক্ষা পেছন’ দাবি পড়ুয়াদের

মহানগর বার্তা ওয়েবডেস্ক : সমগ্র দেশ জুড়েই বর্তমানে করোনা সংক্রমণের পরিমাণ যেভাবে বেড়ে চলেছে তার ফলে সাধারণ জনগণ থেকে শুরু করে ছাত্রসমাজ যথেষ্ট দুর্ভোগের মধ্য দিয়ে যাপন করে চলেছে।তবে এর মধ্যেই ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী আফগানিস্তানকে স্বাধীনতা দিবসের শুভেচ্ছা জানিয়ে একটি টুইট করার সাথে সাথেই এই টুইটকে ঘিরে সোশ্যাল মিডিয়াতে সৃষ্টি হলো উত্তেজনা।সরগরম পরিস্থিতির সৃষ্টি হলো পড়ুয়ামহলে।

করোনা প্রাক্কালে জয়েন্ট এন্ট্রান্স এবং ন্যাশ্যানাল এলিজিবিলিটি অ্যান্ড এন্ট্রান্স টেস্ট পরীক্ষার সময়সীমা পিছিয়ে সেপ্টেম্বর করা হলেও বর্তমান পরিস্থিতির নিরিখে এই পরীক্ষা যাতে স্থগিত রাখা হয় এই উদ্দেশ্যেই কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন পড়ুয়াদের একাংশ। কিন্ত সোমবার এই দাবি খারিজ করে দেয় সুপ্রিম কোর্ট। যার এই ফলে এই অতিমারী প্রসঙ্গে ছাত্রছাত্রীমহলে একপ্রকার চিন্তার ভাঁজ দেখা গিয়েছে।

https://twitter.com/alathur_k/status/1295766078295961601?s=19

ফলস্বরূপ আফগানিস্তানকে শুভেচ্ছাবার্তা জানিয়ে দেশের প্রধানমন্ত্রী সোশ্যাল মিডিয়াতে পোস্ট দেওয়ার সাথে সাথেই এবার সরাসরি প্রধানমন্ত্রীর পোস্টের তলায় আবেদন গ্রহণের আর্জি জানালো পড়ুয়ারা। এই বিষয়ে শ্রীলক্ষী কে. আলাথুর নামের এক পড়ুয়া জানিয়েছে, “কেউ পরোয়া করেনা এই প্যানডেমিকের, দয়া করে এরম আচরণ কেউ করবেননা। আপনার সাহায্য আমাদের একান্ত কাম্য। অনেক ছাত্র ছাত্রী মানসিক সমস্যার জেরে আত্মহত্যা করেছে। আপনি দয়া করে পরীক্ষা স্থগিতের নির্দেশিকা জারি করুন।”

এছাড়াও শিবাঙ্গি তিওয়ারি নামের অন্য এক পড়ুয়া প্রধানমন্ত্রীকে আন্তরিকভাবে নিবেদন জানিয়েছেন যাতে বিষয়টি তিনি খতিয়ে দেখেন।তবে দেবেশ নামের এক পড়ুয়া প্রধানমন্ত্রীর এহেন বিচারভঙ্গিকে কটাক্ষ করে বলেছেন,”আপনি দয়া আগে ঘরের সমস্যা মেটান। পরে বাইরের লোকের পাশে দাঁড়াবেন। পরিস্থিতিকে নজরে রেখে পরীক্ষা স্থগিত করা হোক।”

https://twitter.com/0Devesh9999/status/1295762038396866561?s=19

অন্যদিকে, সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি অরুণ মিশ্রের বেঞ্চ মহাশয় এই বিষয়ে জানিয়েছেন, “একটি মহামারী কখনোই ছাত্রছাত্রীদের জীবন থামিয়ে দেবেনা। করোনা পরিস্থিতির জেরে ইতিমধ্যেই ছাত্রছাত্রীদের অনেক ক্ষতি হয়েছে। এখন পরীক্ষা স্থগিত করলে আরো একটা বছর পিছিয়ে যেতে হবে। তাই সবকিছু মাথায় রেখেই নির্ধারিত সময়ে পরীক্ষা নেওয়ার কথা জানানো হয়েছে।”

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close