দেশ

“নির্যাতিতা তরুণীর জন্য ন্যায় বিচার চায় গোটা দেশ”, হাথরাস থেকে ফিরে ট্যুইট রাহুল গান্ধীর

মহানগরবার্তা ওয়েবডেস্ক:হাথরাসে নির্যাতিতা তরুণীর পরিবারের সঙ্গে দেখা করে এসেই সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজের প্রতিক্রিয়া জানালেন রাহুল গান্ধী। এদিন রাতে নিজের ট্যুইটার হ্যান্ডেলে হাথরাস নিয়ে মন্তব্য করেন তিনি। কংগ্রেসের প্রাক্তন এই সভাপতি জানান, হাথরাসের ওই তরুণীর জন্য সারা দেশের মানুষ সুবিচার চায়। এই সুবিচার সকলে মিলে নিশ্চিত করতেই হবে।

এদিন সন্ধ্যায় হাথরাসে গিয়ে নির্যাতিতা তরুণীর পরিবারের সঙ্গে দেখা করেন প্রাক্তন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী এবং সর্বভারতীয় কংগ্রেসের সভানেত্রী প্রিয়াঙ্কা গান্ধী বঢড়া। তরুণীর পরিবারের পাশে থেকে সবরকম সহায়তা করার আশ্বাস দেন তাঁরা। এই সাক্ষাতের ঘন্টা কয়েক পরেই ট্যুইট করেন রাহুল গান্ধী। “আমি আজ হাথরাসের পীড়িত পরিবারটির সঙ্গে দেখা করেছি। ওঁদের যন্ত্রণাকে চোখের সামনে দেখেছি, উপলব্ধি করেছি। বলেছি ওঁদের এই কঠিন সময়ে আমরা সবসময় ওঁদের পাশেই আছি। ওই তরুণীর জন্য ন্যায় বিচার সুনিশ্চিত আমরা করবোই। এ ব্যাপারে উত্তরপ্রদেশ সরকার আর কোনো স্বেচ্ছাচার করতে পারবে না। কারণ এখন গোটা দেশ ন্যায় বিচারের দাবিতে একজোট হয়েছে”, ট্যুইটে জানান তিনি।

আজ প্রায় ত্রিশ মিনিট ধরে ওই পীড়িত পরিবারের সঙ্গে কথা বলেন রাহুল গান্ধী ও তাঁর বোন প্রিয়াঙ্কা গান্ধী। এরপর সংবাদমাধ্যমের সামনে তাঁরা জানান ওই পরিবারের পাশে আছে কংগ্রেস। “ওঁরা নিজের মেয়েকে শেষ বারের মত দেখতে পান নি। উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের নিজের কর্তব্য বোঝা উচিত। যতক্ষণ পর্যন্ত না এই ঘটনার সুবিচার নিশ্চিত হচ্ছে, আমরা লড়াই চালিয়ে যাব”, বলেন প্রিয়াঙ্কা গান্ধী।

 

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, হাথরাসের উনিশ বছর বয়সী দলিত তরুণীর গণধর্ষণ ও মৃত্যুর ঘটনায় এখন উত্তাল সারা দেশ। এই প্রেক্ষাপটে দুদিন আগেই ওই পীড়িত পরিবারের সঙ্গে দেখা করার চেষ্টা করেন কংগ্রেস নেতৃত্ব। কিন্তু পুলিশ তাঁদের বাধা দেয়। এমনকি সাময়িক ভাবে গ্রেফতারও করা হয় তাঁদের। আজ শনিবার অবশেষে পরিবারটির সঙ্গে দেখা করার সুযোগ পান তাঁরা।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close