আন্তর্জাতিক

মেয়ে হয়ে কেন পুলিশে চাকরি! জঙ্গি হামলায় দুই চোখ খোয়ালেন আফগানিস্তানের মহিলা

মহানগরবার্তা ওয়েবডেস্ক: আফগানিস্তান ও পার্শ্ববর্তী অঞ্চলে জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসমূলক কার্যকলাপ দিন দিন বেড়েই চলেছে। তালিবানি জঙ্গি সংগঠন গুলির সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপের জেরে ফের আক্রান্ত হলেন আফগানিস্তানের এক মহিলা পুলিশ অফিসার। দুষ্কৃতীদের আক্রমণে নিজের চোখ দুটোই হারিয়ে ফেললেন তিনি।

জানা গেছে, আফগানিস্তানের ৩৩ বছর বয়সী ওই মহিলার নাম খাতেরা। তিনি পদবী ব্যবহার করেন না। আফগানিস্তান পুলিশ বিভাগের অপরাধ দমন শাখার পদস্থ অফিসার তিনি। এদিন কাজ শেষে থানা থেকে বাড়ি ফেরার পথে তিন জন দুষ্কৃতী মোটর সাইকেলে চড়ে তাঁর উপর হামলা চালায় বলে জানা গেছে সূত্রের খবরে। দুষ্কৃতীরা তাঁর দিকে গুলি চালানোর পরে ধারালো ছুরি দিয়ে চোখেও আঘাত করে। বর্তমানে গজনির একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছেন খাতেরা।

ঘটনার বিভীষিকার কথা স্মরণ করে খাতেরা জানান, হাসপাতালে জ্ঞান ফেরার পর ডাক্তারদের কাছ থেকে তিনি জানতে পারেন তাঁর চোখ চিরকালের জন্য অন্ধ হয়ে গিয়েছে। “পুলিশ হিসেবে আমি অনন্ত একটা বছর যদি কাজ করতে পারতাম তাহলে আমার ব্যথা কিছুটা কমত। মাত্র তিন মাস সময় আমি পেলাম আমার স্বপ্ন সফল করতে।” কথা বলতে বলতে খাতেরার গলায় ঝরে পড়ে আক্ষেপ।

গত আগস্ট মাসেই গজনি পুলিশ ফোর্সের অপরাধ দমন শাখার অফিসার হিসেবে কাজে যোগ দেন খাতেরা। কিন্তু একজন মেয়ে হয়ে এই ধরণের পেশা বেছে নেওয়াকে ভালো চোখে দেখে নি অনেকেই। এমনকি তাঁর নিজের বাবাও তাঁকে সমর্থন করেননি। তবু নিজের জেদে এই জায়গায় পৌঁছেছিলেন খাতেরা।তবে শেষ পর্যন্ত স্বপ্নের দৌড়ে থমকে যেতে হল তাঁকে। তালিবান গোষ্ঠী খাতেরার উপর এই আক্রমণের দায় অবশ্য স্বীকার করে নি, তবে স্থানীয়দের অভিযোগের আঙুল তালিবানি সন্ত্রাসের দিকেই। কেউ কেউ আবার খাতেরার বাবাকেও সন্দেহের তালিকা থেকে সরাতে চাইছেন না।

বস্তুত, আফগানিস্তানের সমাজে এখনও মেয়েদের বাড়ির বাইরে বেরিয়ে কাজ করে অর্থ উপার্জন করাকে ভালো চোখে দেখা হয় না। বিশেষত মেয়েদের জনপ্রতিনিধি হিসেবে মেয়েদের যোগদানে একেবারেই সমর্থন নেই তালিবান তথা আফগানিস্তানের উগ্র জঙ্গি দলগুলির। খাতেরার উপর এই আক্রমণ আরো একবার সেই পুরুষতান্ত্রিক আক্রোশকেই প্রকট করে তুলল।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close