দেশ

“যতদিনই লাগুক, আমরা তৈরি”, ঘরের কাজ সামলে এবার কৃষক আন্দোলনে হুঙ্কার মেয়েদের

মহানগরবার্তা ওয়েবডেস্ক: কেন্দ্রীয় সরকারের কৃষি আইনের বিরুদ্ধে কৃষকদের আন্দোলন নিয়ে গত কয়েক দিন ধরেই উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে দেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতি। পাঞ্জাব হরিয়ানা সহ বিভিন্ন রাজ্য থেকে অসংখ্য কৃষক নিজেদের দাবি আদায়ের জন্য পারি দিয়েছেন দিল্লির উদ্দেশ্যে। অন্নদাতা কৃষকদের সঙ্গে সুর মিলিয়ে তাঁদের পাশে দাঁড়িয়েছেন অনেকেই। এবার আন্দোলন আরো জোরদার করতে এগিয়ে এলেন মেয়েরাও।

এদিন আন্দোলনরত কৃষকদের পাশে দাঁড়াতে পাঞ্জাব ও হরিয়ানা থেকে প্রায় শতাধিক মহিলা এসে হাজির হয়েছেন বিক্ষোভ স্থলে, এমনটাই জানা গেছে বিশেষ সূত্রের খবরে। জানা গেছে, তাঁরা সকলেই কৃষক পরিবারের সদস্য। ঘরের কাজ সামলে তাঁরা বিক্ষোভে যোগ দিতে এসেছেন, নিজেদের স্বামী বাবা ছেলের সঙ্গেই দাবি আদায়ের লড়াইয়ে সামিল হতে চেয়েছেন তাঁরাও।

এ প্রসঙ্গে সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যম পিটিআই-এর কাছে মনদীপ কৌর নামে এক ৫৩ বছর বয়সী কৃষক মহিলা জানিয়েছেন, “চাষের কাজকে কোনো লিঙ্গ (gender) দিয়ে বিচার করা চলে না। মেয়েরা কাজ করুক বা ছেলেরা, মাঠে একই ফসল ফলে। অসংখ্য ছেলে চাষীরা এখানে প্রতিবাদ করছেন, আমরা তাহলে কেন বাড়িতে বসে থাকব?” পাঁচ ঘন্টা বাসে চড়ে সিংঘু বর্ডারে পৌঁছেছেন সুখবিন্দর কৌরও। তাঁর কথায়, “আমার রাতে ঘুম হচ্ছিল না। আমার ভাই, ভাইপো আর বাকি সমস্ত চাষী ভাইরা যখন এখানে লড়াই করছে, আমি বাড়ি বসে থাকতে পারি নি। এখানে আসার পর আমি নিশ্চিন্তে ঘুমোতে পেরেছি।” আন্তর্জাতিক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা ‘খালসা এইড’ থেকে দেওয়া তাঁবুতে তাঁরা গত রাতে ঘুমিয়েছেন বলে জানা গেছে সূত্রের খবরে।

তাঁরা আরো বলেন, “আমরা ঘরোয়া মেয়ে, বাইরের জগৎ সম্বন্ধে বিশেষ কিছু জানি না। কিন্তু এখানে এসে বুঝতে পেরেছি এই লড়াইটা কত বড়। যতদিনই লাগুক, লড়াইয়ের জন্য আমরা তৈরি। সকলে আমাদের পাশেই আছে।”

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, চলতি বছরের সেপ্টেম্বরে কৃষি সংক্রান্ত কেন্দ্র সরকারের তিনটি বিল পাশ হয় পার্লামেন্টে। সরকারের তরফ থেকে এই আইনের মাধ্যমে কৃষকদের উন্নয়নের দাবি করা হলেও কৃষক সংগঠন গুলি প্রথম থেকেই ছিল এই আইনের বিপক্ষে। আন্দোলনে মহিলাদের উপস্থিতি যে কৃষকদের লড়াইকে আরো জোরদার করল তা বলাই বাহুল্য।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close