fff
খেলা

Women’s Euro 2022 : যুবরাজের সামনে ওয়েম্বলিতে মহারানি হয়ে উঠলেন কেলি, মনে করালেন সৌরভকেও

মহানগর বার্তা ওয়েবডেস্কঃ উচ্ছ্বাস কখনও গণ্ডি মানে না। তাই মহারাজার উচ্ছ্বাসের সঙ্গে প্রজার পার্থক্য‌ও থাকে না। তা বলে আভিজাত্যের গাম্ভীর্যে মোড়া ব্রিটিশ রাজ পরিবারের সদস্য‌ও এমন করবেন! মহিলাদের ইউরোর ফাইনালে (Women’s Euro 2022) ১১০ মিনিটে ক্লোয়ি কেলি (Chole Kelly) গোল করতেই আসন ছেড়ে লাফিয়ে উঠলেন যুবরাজ উইলিয়াম। এতে স্পষ্ট প্রকাশ পেয়েছে একজন ফুটবল (Football) সমর্থকের নির্ভেজাল আনন্দ। আর আগেই বললাম উচ্ছ্বাসে সবাই সমান।

ইউরো ফাইনালে (Women’s Euro 2022) নির্ধারিত ৯০ মিনিটে ফলাফল ছিল ১-১। ফলে ম্যাচ গড়ায় অতিরিক্ত ৯০ মিনিটে।ইংল্যান্ডের ফুটবলার ক্লোয়ি কেলি(Chole Kelly) অতিরিক্ত সময়ের ১১০ মিনিটের মাথায় জার্মানির গোল বল ঢুকিয়ে দেন। এরপর বাকি ছিল আর ১০টা মিনিট। এই ১০ মিনিট শেষ হলেই মহিলাদের ইউরো কাপ (Women’s Euro 2022) প্রথমবারের মতো জিতত ইংল্যান্ড(Englan)। সেই অতিরিক্ত সময়ে গোল করে কেলি(Chole Kelly) যেভাবে উচ্ছ্বাসে মেতে উঠলেন তা আবেগে উদ্বেল করল বাঙালিদের‌ও। ২০ বছর আগের নস্টালজিক দৃশ্য যেন চোখের সামনে ভেসে উঠল।

ক্লোয়ি কেলি তেকাঠিতে বল রেখেই মুহুর্তের মধ্যে খুলে ফেলেন জার্সি। তাঁর উর্দ্ধাঙ্গে তখন শুধুই স্পোর্টস ব্রা! ঠিক এইভাবে ২০ বছর আগে সৌরভ গাঙ্গুলি (Sourav Ganguly) লর্ডসের ব্যালকনিতে জার্সি খুলে ঘুরিয়েছিলেন। ন্যাট‌ওয়েস্ট ট্রফির ফাইনালে ইংল্যান্ডকে হারাতেই লর্ডসের ঐতিহ্যবাহী ব্যালকনিতে আনন্দে জার্সি খুলে ফেলে মাথার উপর বনবন করে ঘুরিয়েছিলেন বাঙালির আইকন সৌরভ।

লর্ডস থেকে ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামের দূরত্ব মেরে কেটে আট মিনিট। সেই ওয়েম্বলিতে বক্সের মধ্যে কেলির ডান পায়ের শট জার্মানির গোলে (Football) ঢুকতেই ছুটতে শুরু করেন। তারপর কেলি (Chole Kelly ) ঘটাল এল অদ্ভূত কাণ্ড! গ্যালারিতে ব্রিটিশ যুবরাজ উইলিয়ামস উপস্থিতি ভুলে মুহুর্তের মধ্যে সাদা জার্সি খুলে ফেলে। অন্তর্বাস পরে মাথার ওপর জার্সি ঘোরাতে ঘোরাতে মাঠময় ছুটে বেড়াচ্ছে কেলি (Chole Kelly)! এ এক দেখার মতো দৃশ্য ছিল। সতীর্থরা পিছনে ছুটেও তাকে ধরতে পারছে না। ক্লোয়ি কেলি যেন তখন ডানায় ভর করে উড়ে বেড়াচ্ছে।

কেলির (Chole Kelly) এই উচ্ছ্বাস ওয়েম্বলিতে উপস্থিত ৮০ হাজার ইংরেজকে ভাসিয়ে নিয়ে গিয়েছে। সেই সঙ্গে স্মৃতির সরণী ধরে বাঙালিদের‌ও ২০ বছর আগে ফিরিয়ে নিয়ে যায়। করে তোলে নস্টালজিক।

এমনিতেই লন্ডন প্রিন্স অফ ক্যালকাটার সেকেন্ড হোম নামে পরিচিত। এই শহরেই ন্যাটওয়েস্ট ট্রফি জিতে সৌরভের হাত ধরে ভারতীয় ক্রিকেটের এক নতুন যাত্রাপথ শুরু হয়েছিল। লর্ডসের ব্যালকনিতে  জার্সি খুলে সৌরভের উচ্ছাসে ফেটে পড়া ছিল যেন তার‌ই বহিঃপ্রকাশ। যা আজ‌ও ভারতীয় ক্রিকেটের ক্যানভাসে স্মরনীয় হয়ে আছে।

তবে সমালোচনারও শিকার‌ও হতে হয়েছিল সৌরভ গাঙ্গুলিকে (Sourav Ganguly)। তাঁকে উদ্ধত বলে কটুক্তি করেছিল ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম (British News Media)। সেই সময় সৌরভের(Sourav Ganguly) সঙ্গে একই ব্যালকনিতে ছিলেন ভিভিএস লক্ষ্মণ। অনেক পরে এক সাক্ষাৎকারে ভিভিএস বলেছিলেন, তিনি সেই সময় বুঝতে পারেননি সৌরভ (Sourav Ganguly) হঠাৎ ওইভাবে জার্সি খুলে ঘোরাবেন। তিনি থামানোর চেষ্টা করেছিলেন সৌরভকে ( Sourav Ganguly), কিন্তু তিনি ব্যর্থ হন। তবে সৌরভ (Sourav Ganguly) নিজেও পরবর্তীতে বলেন, “এখন ওই ঘটনার কথা মনে করলে নিজেই বিব্রত বোধ করি”। আসলে,সেই জয়ের পর তিনি হয়তো বেশিই উত্তেজিত হয়ে পড়েছিলেন। যদিও ভাজ্জি, মানে হরভজন সিংহ অবশ্য বরাবর‌ই সমর্থন করে এসেছে সৌরভের এই কাজকে। সৌরভকে দেখে তিনিও জার্সি খোলার চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু পাশেই থাকা রাহুল দ্রাবিড় তাঁকে আটকে দেন।

যদিও ইউরো কাপ (Women’s Euro 2022) ফাইনালে কেলির (Chole Kelly) জার্সি খোলার বিশেষ সমালোচনা হয়নি। কারণ ফুটবল (Football) মাঠে এরকম ঘটনা প্রায়শই ঘটতে দেখা যায়। নিয়ম অনুযায়ী কোনও খেলোয়ার জার্সি খুললে রেফারিরা হলুদ কার্ড (Yellow Card) দেখিয়ে সতর্ক (warning)  করেন। কেলিকেও তা করা হয়েছে। তবে কার্ড দেখিয়েও খেলোয়ারদের যে এই পথ থেকে বিরত করা যায়নি তা বারে বারে প্রমাণ হয়েছে।

কেলির (Chole Kelly) এই জার্সি খুলে উচ্ছাস প্রকাশের  মধ্যেও ছিল একটা তীক্ষ্ণ জবাব। এর আগে জার্মানির সঙ্গে ২৭ বারের সাক্ষাতে ২৫ বার‌ই হারতে হয়েছিল ইংল্যান্ডকে। এমনকি ২০০৯ এর ইউরো ফাইনালে এই জার্মানির কাছেই হেরে গিয়েছিল ইংল্যান্ডের মেয়েরা। এবারেও জার্যানরাই ফেভারিট হিসেবে মাঠে নেমেছিল। যদিও শুরু থেকেই জবাব দেওয়ার ইচ্ছে তাগড়া করে বেরিয়েছে কেলিদের। তাছাড়া সমালোচকদের ব্যক্তিগত জবাব দেওয়ার ছিল তার লক্ষ্য। অনেকেই কেলিকে (Chole Kelly) ইউরো টিমে নেওয়ার সিদ্ধান্তকে ভুল বলেছিল। তবে শেষ পর্যন্ত দেশকে ট্রফি জিতিয়ে এই সমালোচনার যোগ্য জবাব দিলেন ক্লোয়ি কেলি।

ট্রফি জয়ের পরে কেলি (Chole Kelly) তার স্বপ্নপূরণের কথা প্রকাশ করেছে। এই বছরের অনেকটা সময় মাঠের বাইরেই কাটাতে হয়েছিল চোটের কারণে। নিজেও নিশ্চিৎ ছিলেন না এবারের ইউরো টিমে সুযোগ পাবেন কিনা। কিন্তু এই খারাপ সময়ে তাঁর পাশে দাঁড়িয়েছিল জাতীয় দলের প্রত্যেকে (National Team)। তাই ইউরো জেতার পর কেলি (Chole Kelly) সতীর্থদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন। বলেছেন, ‘‘ছোট থেকে একটাই স্বপ্ন দেখেছি। ইংল্যান্ডের (England) হয়ে ট্রফি জেতা। ইউরো কাপ জিতে সেই স্বপ্ন সত্যি হয়েছে। চোট সারাতে যখন রিহ্যাব করছিলাম সেই সময় গোটা দল পাশে ছিল। আমার উপর বিশ্বাস রেখেছিল। সেই বিশ্বাসের দাম দিতে পেরেছি।’’ কেলি (Chole Kelly) সমর্থকদের ধন্যবাদ জানিয়ে বলেছেন, ‘‘যাঁরা প্রতিটা মুহূর্তে আমাদের জন্য গলা ফাটিয়েছেন, তাঁদের অনেক ধন্যবাদ। এই ট্রফি তাঁদের জন্য।’’

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
Close
Close

Adblock Detected

Please Disable your ADBlocker!