মহানগর

বেহালার সুরে রোগীদের মন ভালো করলেন দৃষ্টিহীন যুবক, অভিনব উদ্যোগ বিশ্ব বেহালা দিবসে

মহানগরবার্তা ওয়েবডেস্ক: অনেকেই বলে থাকেন বেহালার সুরমূর্ছনায় জাদু আছে, বিশেষ বিশেষ মুহূর্ত মানুষকে তা নিয়ে যেতে পারে সম্পূর্ণ অন্য জগতে। আর তাই সঙ্গীতের দুনিয়ায় বেহালার কোনো বিকল্প নেই। ওয়েস্টার্ন মিউজিক থেকে শুরু করে ইন্ডিয়ান ক্লাসিক্যাল, সমস্ত ধরনের সুরই ঝংকার তোলে বেহালার তারে। করোনা ভাইরাসের অতিমারীর মাঝে যখন চারিদিকে বিপন্নপ্রায় মানুষের জীবন, যখন প্রিয়জন হারানোর আশঙ্কায় প্রহর কাটছে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের মানুষের, তখন কলকাতার হাসপাতালে পালিত হল আন্তর্জাতিক ভায়োলিন দিবস।

আজ ১২ ডিসেম্বর কলকাতার সল্টলেকের নন-কোভিড আইএলএস হাসপাতালে পালন করা হয়েছে আন্তর্জাতিক বেহালা দিবস। সোসাইটি ফর দ্য ওয়েলফেয়ার অফ দ্য ব্লাইন্ডসের তরফ থেকে আজ একজন সদস্য সল্টলেকের ওই হাসপাতালে এসে রোগী ও রোগীর পরিবারদের বেহালা বাজিয়ে শুনিয়েছেন। বলা বাহুল্য, বেহালা বাদক ছিলেন দৃষ্টিহীন। তাঁর হাতে বেহালার তারে যে সুরের ঝংকার উঠেছিল, তাতে মুগ্ধ হয়েছেন রোগীরা।

বস্তুত, হাসপাতালের রোগীদের বেহালা বাজিয়ে মন ভালো করে দেওয়ার উদ্দেশ্যেই এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিলেন তাঁরা। তাঁদের এই অভিনব উদ্যোগ ইতিমধ্যেই প্রশংসা কুড়িয়েছে বিদ্যজনের। আইএলএস হাসপাতালের গ্রুপ ভাইস প্রেসিডেন্ট দেবাশিস ধর জানিয়েছেন, “আজ আমরা ভীষণ আনন্দিত। নন কোভিড হাসপাতাল হলেও রোগীদের নিয়ে সবসময়ই আতঙ্কে দিন কাটান পরিবারের লোকজন। বছরটা তো কারোরই ভালো কাটে নি, বছর শেষে হাসপাতালের বিছানায় শুয়ে তাঁদের কেমন লাগছে , সেটা সবাই মোটামুটি বুঝতে পারবেন। আজ আমাদের হাসপাতালে এসে এভাবে সকলের মন ভালো করে দেওয়ার জন্য, সকলের মুখে হাসি ফোটানোর জন্য, আমরা কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি সোসাইটি ফর দ্য ওয়েলফেয়ার অফ দ্য ব্লাইন্ডসের কাছে।”

এ ব্যাপারে সোসাইটি ফর দ্য ওয়েলফেয়ার অফ দ্য ব্লাইন্ডসের সেক্রেটারি বিশ্বজিৎ ঘোষের বক্তব্য, “আমাদের দৃষ্টিহীন সদস্যকে এত বড় সুযোগ দেওয়ার জন্য হাসপাতালের কর্তৃপক্ষের কাছে আমরা কৃতজ্ঞ। এমন এক আনন্দ যজ্ঞে আমাদের সামিল করার জন্য খুবই খুশি আমরা। মিউজিকের মাধ্যমে এতগুলো রোগীর মুখে হাসি ফোটাতে পেরে মন ভালো হয়ে গেল।”

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close